খালেদা হোমওয়ার্ক করেননি: কাদের

Kaderঢাকা অফিস: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্বাচনকালীন সরকারের প্রস্তাব ‘অবাস্তব’ বলে মন্তব্য করেছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন শেষে কাদের বলেন,  “বিরোধী দলীয় নেতা যে পাল্টা প্রস্তাব রেখেছে তা অবাস্তব। তিনি প্রস্তাব রাখার আগে হোমওয়ার্ক করে আসেননি। তার প্রস্তাবে বড় ধরনের ভুল আছে।

“উনি ১৯৯৬ ও ২০০১ এর যে উপদেষ্টাদের কথা বলেছেন, আমার জানা মতে এদের মধ্যে চার জন মারা গেছেন। আছেন ১৪জন। তার মধ্যে চারজন অসুস্থ। আমি যতটুকু জানি বাকিদের মধ্যে পাঁচ-ছয় জন এ কাজে অন্তর্ভুক্ত হতে রাজি নয়। একটু খোঁজ-খবর নিয়ে যদি কথা বলতেন তাহলে ভাল হত।” আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকারের প্রস্তাব নাকচ করে পাল্টা প্রস্তাব তুলে ধরেন বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়া।

আগের দুটি নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টাদের নিয়ে সরকার গঠনের পক্ষে মত দেন তিনি। ‘সবার কাছে গ্রহণযোগ্য’ একজন সম্মানিত নাগরিককে ওই সরকারের প্রধান করার পক্ষে তিনি। বেলা সোয়া ১১টায় সীতাকুণ্ডের পাকা রাস্তার মাথা এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চার লেন প্রকল্পের পাঁচটি কালভার্ট উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন যোগাযোগ মন্ত্রী। তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী সর্বদলীয় সরকারের যে প্রস্তাব দিয়েছেন তা সংলাপ ও সমঝোতার দরজা খুলে দিয়েছে। আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে খুঁটিনাটির সমাধান হয়।”  আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলির সদস্য ওবায়দুল কাদের বলেন, আকবর আলী খান ও ব্যারিস্টার রফিকুল হকের মত মানুষ এবং যুক্তরাজ্য সরকার প্রধানমন্ত্রীর এ প্রস্তাবকে ইতিবাচক বলেছে।

“কে হবেন সর্বদলীয় সরকারের প্রধান, সংবিধানের মধ্যেও বিকল্প সমাধান আছে। আলাপ-আলোচনা করে সমাধানে যাওয়া যেত। ইটস ডিফিকাল্ট বাট নট ইমপসিবল,” বলেন তিনি। আগামীকাল থেকে শুরু হতে যাওয়া সংসদ অধিবেশনে বিরোধী দলকে অংশ নেয়ার আহ্বান জানিয়ে কাদের বলেন, “সংসদে এসে তারা কথা বলতে পারেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন দেশ, জনগণ ও গণতন্ত্রের স্বার্থে তিনি সর্বোচ্চ ত্যাগ করবেন। “এখানে সমস্যা হলো মানসিক ও অবিশ্বাসের। অবিশ্বাসের দেয়াল ভাঙতে হবে। আমি মনে করি, কালো মেঘ কেটে যাবে- আলোর পথ খুঁজে পাব।”

জাতীয় পার্টির অবস্থান সম্পর্কে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, “জাতীয় পার্টির সাথে আমাদের ঐক্য নির্বাচনগত। এটা কোনো আদর্শগত ঐক্য নয়। এটা একটা কৌশলগত ব্যাপার।” প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাতীয় পার্টির ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “মহাজোট ভাঙার মত কোনো কিছু হয়নি। এরশাদ সাহেব জোটে থাকবেন কি থাকবেন না এটা তার ও তার দলের ব্যাপার। আমরা জোর করতে পারি না। এরশাদ মহাজোটে থাকবে কি থাকবে না তা দেখতে আগামী দিনের জন্য অপেক্ষা করুন।” এর আগে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চার লেন প্রকল্পের সিটি গেইট সংলগ্ন অংশে পাঁচটি কালভার্টের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

সেখানে তিনি বলেন, “ঢাকা- চট্টগ্রাম মহাসড়কে চার লেনে মোট ২৪৪টি কালভার্ট নির্মাণের কথা। এখন পর্যন্ত ২২৮টি উদ্বোধন করা হয়েছে। এ প্রকল্পে মোট ২৩টি সেতু আছে। নয়টির উদ্বোধন হয়েছে। আজ পাঁচটি উদ্বোধন করব। বাকিগুলোর কাজ ৬০ থেকে ৯০ শতাংশ হয়ে গেছে।” চলতি অর্থবছরেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চার লেনের পুরো সুফল পাওয়া যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪