বিরোধী দলের পরবর্তী কর্মসূচি ‘শিগগিরই’

73_Mirza+Fakhrul_BNP+office_061113ঢাকা অফিস: টানা ৬০ ঘণ্টার হরতাল শেষে বুধবার নয়া পল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের জিজ্ঞাসায় একথা জানান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব।

কর্মসূচি ঘোষণা না করলেও তিনি বলেছেন, আওয়ামী লীগ নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বিরোধী দলের সঙ্গে সমঝোতায় না এলে রাজপথেই ফয়সালা হবে। “সরকারকে এখনো বলছি, সংলাপের পথে এগিয়ে আসুন, সঙ্কটের সমাধান করুন। একতরফা কোনো সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিলে এর একশভাগ দায়-দায়িত্ব সরকারের ওপরই বর্তাবে,” হুঁশিয়ারি দেন ফখরুল। নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনে সরকারের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে ফখরুল আবার বলেন, “ আমাদের একটাই দাবি- নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন।”

এই দাবিতে গত রোববার থেকে ৬০ ঘণ্টার হরতাল সফল হয়েছে দাবি করে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, এজন্য বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া দেশবাসী ও নেতা-কর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। বোমাবাজি, গাড়ি পোড়ানোর মধ্য দিয়ে ৬০ ঘণ্টার হরতাল বুধবার সন্ধ্যায় শেষ হয়েছে। হরতালে সহিংসতায় অন্তত তিনজন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে গাড়িতে দেয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা গেছেন একজন। ফখরুল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, হরতালের তৃতীয় দিনে ১৮ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীর আব্দুস সামাদ সরকারি বাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে তিন দিনে চারজন নিহত হলেন। তিন দিনে বিরোধী দলের ১ হাজার ৭০৭ জন গ্রেপ্তার, ৬ হাজার ৭১ জন আহত এবং ২৬ হাজার জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলে দাবি করেন বিএনপি নেতা।

বিরোধী দলের ওপর দমন-পীড়নের অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, “অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, চরম স্বৈরাচারী দেশের থেকেও বাংলাদেশের অবস্থা খারাপ। আফ্রিকার রুয়ান্ডার মতো অবস্থা।” সভা-সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা, দলীয় কার্যালয় পুলিশ দিয়ে ঘিরে রাখা,নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তারের নিন্দাও জানান বিএনপির মুখপাত্র। সরকার সংলাপের কথা বললেও বিভিন্ন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতাদের বক্তব্যে বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে বলে দাবি করেন তিনি।  “নির্বাচন কবে হবে, নির্বাচনকালীন সরকারের গঠন কাঠামো কী হবে, সংসদ কতদিন চলবে- কোনো কিছুই কেউ সঠিকভাবে বলছে না। মন্ত্রীরা একেক জন একেক রকম কথা বলে বিভ্রান্তি তৈরি করছেন। এটা অনেকটাই পরীক্ষা পেছানোর মতো অবস্থা।” একতরফা নির্বাচনের উদ্দেশ্যে সরকার এই ‘লুকোচুরি’ করছে, অভিযোগ করেন ফখরুল।

বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট-বিএনএফকে নিবন্ধন দিতে নির্বাচন কমিশন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে- এখবরের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, “বিএনপিকে মোকাবেলার জন্য বিএনএফের মতো ভুঁইফোড় সংগঠনকে নিবন্ধন দিতে তাদের অনুগত নির্বাচন কমিশনকে ব্যবহার করছে। এথেকে প্রমাণ হয়- আওয়ামী লীগে আজ রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে।” বিএনপি ক্ষমতায় গেলে ‘জঙ্গিবাদের উত্থান হবে’, ‘বাংলা ভাইরা ফিরে আসবে’ বলে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানান ফখরুল।  “দেশের মানুষ জানে, কাদের আমলে জঙ্গিবাদের ঘটনা ঘটেছে। আওয়ামী লীগের আমলেই শায়খ আবদুর রহমান ও বাংলা ভাইসহ জঙ্গিদের উত্থান হয়েছে, রমনা-যশোরসহ বিভিন্ন স্থানে বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে।” “কিন্তু ওই জঙ্গিদের বিরুদ্ধে তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে শক্ত হাতে জঙ্গি দমন করেছে। শায়খ রহমান ও বাংলা ভাইসহ বড় বড় জঙ্গি আটক করে বিচারের আওতায় এনে সাজা দিয়েছে।”

সংবাদ সম্মেলনে ফখরুলের সঙ্গে ছিলেন বিএনপির সহসভাপতি সেলিমা রহমান, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ঢাকা মহানগর সদস্য সচিব আবদুস সালাম, কেন্দ্রীয় নেতা শামীমুর রহমান শামীম, আসাদুল করীম শাহিন, শিরিন সুলতানা, তকদির হোসেন জসিম, খোন্দকার আবদুল হামিদ ডাবলু, সুলতানা আহমেদ, ফরিদা ইয়াসমীন, দেলোয়ারা বেগম পান্না প্রমুখ।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪