হাসপাতালে কাতরাচ্ছে ১০ বছরের মোছলেমা

SUNP0001শাহজাহান সিরাজী, রৌমারী প্রতিনিধি :
লেখাপড়া করার প্রলোভন দেখিয়ে জোড় করে ঝিয়ের কাজ করার পাশাপাশি অমাবিক নির্যাতনে গোটা শরীরে পঁচন ধরেছে ১০ বছরের শিশু মোছলেমার। সে বর্তমানে রৌমারী হাসপাতালের ২ নম্বর বেডে শুয়ে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। চিকিৎসকরা বলছেন, মোছলেমার শরীরে যে রোগ দেখা দিয়েছে তা অত্যন্ত ভয়ানক। দীর্ঘদিন ধরে তার উপর নির্যাতন চালানো হয়েছে। শরীরে কোনো দগদগে ক্ষতচিহ্ন দেখা না গেলেও তার অবস্থা সংকটাপন্ন।
মোছলেমা সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করেছে, প্রায় প্রতিদিনই নির্যাতন করতো তাকে। মুখে গামছা দিয়ে পেটানো হতো। হাত-পা বেধে কখনও বা বুকের উপর বসে মাথায় পেটানো হতো। শরীরের গভীর ক্ষত না করে চাকুর মাথা দিয়ে খোঁচানো হতো। দিনের পর দিন সামান্য ভাত লবণ দিয়ে খেতে দেয়া হতো। হাত মুখ বেঁধে খাটের নিচে ফেলে রাখা হতো। সব মিলে নির্যাতনগলোর ধরণ ছিল অন্যরকম।
রৌমারী উপজেলার দিগলাপাড়া গ্রামের পঙ্গু খলিলুর রহমানের ১০ বছরের মেয়ে এই মোছলেমা খাতুন। খলিলের ৩ মেয়ে ১ ছেলের মধ্যে মোছলেমা দ্বিতীয়। ক্লাস টু’তে মোছলেমার রোল ছিল ১। মেধাবী মোছলেমার লেখাপড়ার খরচ ও খেতে দিতে পারতো না গরীব পিতা। তাই একই গ্রামের ফজলুল মাস্টারের মেয়ে নাহিদা বেগম স্বামীর কর্মস্থল নোয়াখালী জেলার রামগঞ্জে নিয়ে যায় মোছলেমাকে। শর্ত ছিল নাহিদার ছেলেমেয়েকে স্কুলে নিয়ে যাবে এবং সেও লেখাপড়া করবে। নাহিদার স্বামী মোতলেবুর রহমান রামগঞ্জ যুবউন্নয়ন অফিসে চাকুরী করেন। মোতলেবুরের গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলায়।
মোছলেমার মা রমেছা বেগম অভিযোগ করে বলেন, একবছর আগে একই গ্রামের ফজলুল হক মাস্টারের মেয়ে নাহিদা বেগম আমারে কইলেন মেয়াকে তো খাইতে দিতে পারো না লেখাপড়া করাইতে পারো না। আমি মেয়াটারে নিয়ে যাই লেখাড়াও করবো আর ভালো খাইতে পারবো। মেয়ার ভবিষ্যতের চিন্তা কইরা নাহিদার সাথে মোছলেমারে পাঠাইলাম। ফজলুল মাস্টার তার মেয়াবাড়িতে যাইবো শুইনা আমার মেয়াটারে নিয়া আইতে কইলাম। সোমবার মেয়া আমার বাড়িতে আইলে দেহি একি অবস্থা আমার মেয়ার? পরে হাসপাতালে নিয়া আইসি। একই অভিযোগ করেন পিতা খলিলুর রহমান। তিনি সরকারের কাছে মেয়ে নির্যাতনের বিচার দাবি করেন।
এ ব্যাপারে রৌমারী থানার ওসি (তদন্ত) আকতারুজ্জামান জানান, মেয়েটিকে দেখে আসলাম। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। মামলা হলে আসামী গ্রেফতার করা হবে।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪