নাগেশ্বরীতে মটর সাইকেল চুরির হিরিক চার মাসে ১৭টি মোটর সাইকেল চুরি

নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে মটর সাইকেল চুরির হিরিক। গত চার মাসে শুধুমাত্র পৌর এলাকা থেকেই ১৭ টি মোটর সাইকেল চুরি হয়েছে। চুরি যাওয়া মটরসাইকেল মালিকরা থানায় অভিযোগ দায়ের করতে গেলেও থানা কর্তৃপক্ষ কোন মামলা না নেয়ায় তারা পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসকের কাছে রোববার লিখিত অভিযোগ করেছে।
জানা গেছে, সর্বশেষ গত ১২ এপ্রিল নাগেশ্বরী উপজেলার গাগলা বাজার থেকে একটি মোটর সাইকেল চুরি হয়। পরে মোটর সাইকেল চোর রায়হান কবির সোহাগকে ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর কলেজ মোড় এলাকায় জনতা ধরে ফেলে মারপিট করে। খবর পেয়ে ফুলবাড়ী থানার এস আই জাহাঙ্গীর হোসেন ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে বেশ কয়েকটি মোটর সাইকেলের চাবি ও মোবাইল সীমসহ সোহাগকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে ১৫১ ধারায় সন্দেহ ভাজন ভাবে সোহাগকে কোর্টে চালান করে।
অভিযোগ কারীরা জানায়, উক্ত সোহাগ নাগেশ্বরী উপজেলার এক প্রভাব শালী ব্যবসায়ীর পুত্র হওয়ায় যে মোটরসাইকেল চুরীর অপরাধে সোহাগকে জনতা হাতে নাতে ধরে সেই মোটরসাইকেল মালিক ডাঃ নূরজ্জামান মিয়া ভয়ে আপস মিমাংস করে। পরে কোর্টে জানায় যে, মোটর সাইকেলটি চুরি হয়নি উক্ত সোহাগ হাওলাত নিয়েছিল।
অন্য সব চুরি যাওয়া মোটরসাইলের মালিক নাগেশ্বরী উপজেলার বল্লব পুরের সাগর আহমেদ জানান, গত ৪ এপ্রিল পৌর এলাকা থেকে আমার একটি সবুজ রঙ্গের টি ভি এস ১৫০ সিসি গাড়ি চুরি হয়।
সাতানি পাড়ার মোঃ নূরুজ্জামান জানান, গত ৩০শে মার্চ তার একটি বাজাজ ১০০সি সি লাল কালারের গাড়ি চুরি হয়।
একই উপজেলার  কাশিনাথ রায় জানান, তার একটি বাজাজ সিটি ১০০ সিসি গাড়ি গত মার্চের ২ তারিখ, টিএনটি মোড়ের মফিজুল ইসলাম এর বাজাজ সিটি ১০০ সিসি ফেব্র“য়ারীর ৫ তারিখে, বামনডাঙ্গার মাসুদুর রহমানের বাজাজ ডিসকভার ১২৫ সিসি সহ এভাবে গত চার মাসে মোট ১৭টি মোটরসাইকেল চুরি হলেও থানা কর্তৃপক্ষ কোন লিখিত অভিযোগ নেননি। কিংবা একটি গাড়িও উদ্ধারের ব্যবস্থা করেননি।
এ ঘটনায় অন্য সব চুরি যাওয়া মোটরসাইকেল মালিকরা ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। তারা জানায় গত ৪ মাসে নাগেশ্বরী উপজেলায় ১৭ টি মোটরসাইকেল চুরি হয়েছে। এর মধ্য গত দু মাসেই ১২টি মোটরসাইকেল চুরি হয়।
এ ঘটনায় প্রতিটি মোটরসাইকেল মালিক নাগেশ্বরী থানায় অভিযোগ দায়ের করতে গেলেও থানা কর্তৃপক্ষ অভিযোগ নিতে অস্বীকৃতি জানায়। তারা বলেন, একটি চক্র দীর্ঘ দিন ধরে নাগেশ্বরী উপজেলা সদরেই মোটর সাইকেল চুরির সাথে জড়িত। এ চক্রের হোতা সোহাগ তাকে হাতে নাতে ধরার পরেও কোন কার্যকর ব্যবস্থা না নেয়ায় মোটরসাইকেল চোরদের উৎসাহিত করা হচ্ছে।
এদিকে এ ঘটনায় ফুলবাড়ী থানার এস আই জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, জনতা সোহাগকে ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর কলেজ মোড়ে ধরে মারপিট করার সময় আমি উপস্থিত হয়ে তাকে উদ্ধার করি তবে তার কাছে একাধিক মোটরসাইকেলের চাবি কিংবা মোবাইল ফোনের সিম পাইনি। আর যেহেতু চোর এবং অভিযোগ কারীরা নাগেশ্বরী থানার তাই নাগেশ্বরী থানা থেকেও কোন অভিযোগ না পাওয়ায় সন্দেহ ভাজন ভাবেই তাকে কোটে পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে নাগেশ্বরী থানায় যোগযোগ করা হলে দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মাসুম রহমান জানান, আমার জানা মতে সবুজ মিয়া নামের এক মোটর সাইকেল মালিক মৌখিক ভাবে অভিযোগ করলেও সন্দেহ ভাজন কারো নাম না দেয়ায় এ ব্যপারে কোন ব্যবস্থা নিতে পারিনি। তবে ওসি সাহেব অসুস্থ্যতার জন্য ছুটিতে আছেন তিনি জানেন তাকে কারা অভিযোগ করতে এসেছিল।
তবে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে তারা লিখিত অভিযোগ যখন করেছে তখন স্যারদের নির্দেশনা পেলেই আমরা ব্যবস্থা নেব।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪