রেলওয়ের জমি অবৈধ দখল বালু উত্তোলনের ফলে পাইলিং ভেঙ্গে রেলপথ ঝুঁকিপূর্ণ

ulipur pic

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: বাংলাদেশ রেলওয়ের কয়েক একর জমি অবৈধ দখল করে মৎস্য চাষ ও বালু উত্তোলনের ফলে পাইলিং ভেঙ্গে রেলপথ ঝুঁকিপূর্ণ হয়। বহুল আলোচিত এ ঘটনাটি বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ার পর শেষ পর্যন্ত রেল বিভাগ দায়সারা একটি মামলা করেছেন। এ বিষয়কে কেন্দ্র করে এলাকার লোকজনের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।
জানা গেছে, পৌরসভার জোনাইডাঙ্গাঁ গ্রামের মৃত জহির উদ্দিনের পুত্র ফজলুল হক প্রকাশ্যে রেলওয়ের কয়েক একর জমি জবর দখলে নিয়ে বালু উত্তোলন, মৎস্য খামার, চাষাবাদসহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করে আসছে। ফজলুল হকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ রেলওয়ের জমি অবৈধ দখলের অভিযোগ দীর্ঘ দিনের। ফজলুল হকের মৎস্য খামার থেকে বিপুল পরিমান বালু উত্তোলন করে লক্ষ লক্ষ টাকায় বিক্রি করায় পার্শ্ববর্র্তী ফসলি জমি, রেলপথসহ পরিবেশ মারাতœক হুমকির সম্মূখীন হয়। বাংলাদেশ রেলওয়ের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীর যোগসাজসে রেলের জমি জবর-দখল, বালু উত্তোলন করে বিক্রি ও  মৎস্য খামার প্রকল্প তৈরী করণসহ বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার খবরটি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ার পর কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম মাঈদুল ইসলাম সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পত্র প্রেরণ করেছেন। পত্র প্রেরনের প্রায় আড়াই মাস পর বামনডাঙ্গা বাংলাদেশ রেলওয়ের এস,এস,এ ই/ওয়াকর্স সাইদুর রহমান চৌধুরী বাদী হয়ে গত ২০ সেপ্টেম্বর/১৭ইং তারিখে থানায় একটি দায়সারা এজাহার দাখিল করেন। এজাহারটি পাওয়ার ৪১ দিন পর থানার অফিসার ইনচার্জ এস,কে আব্দুল্লাহ আল সাইদ মামলাটি রুজু করেন। যার নং ৪৯ তাং ৩১/১০/১৭ইং। তদন্ত কাজে সময় লেগেছে এমনটাই জানিয়েছেন থানা অফিসার ইনচার্জ।
মামলার বিষয়ে উলিপুর উপজেলা রেল-নৌ, যোগাযোগ ও পরিবেশ উন্নয়ন গণ কমিটির সভাপতি আপন আলমগীর জানান, ভূমিদস্যু ফজলুল হক যেখানে রেল বিভাগের কয়েক একর জমি অবৈধ ভাবে জবর দখলে নিয়ে ১০ লক্ষাধিক টাকার বালু উত্তোলন, মৎস্য খামার তৈরি করে লাখ লাখ টাকার মাছ চাষ করে লুটপাট করছে। এতে রেলের পাইলিং ভেঙ্গে রাষ্ট্রের লক্ষ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হলেও সে বিষয়গুলো মামলায় উল্লেখ করা হয়নি। এছাড়া তিনি আরও জানান, অভিযুক্ত ভূমিদস্যু ফজলুল হক সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট গোপন যোগাযোগের মাধ্যমে রেলওয়ের জমিগুলো লীজ নেয়ার কাজ প্রায় চুড়ান্ত করেছে। তিনি এই অবৈধ লীজ কার্যক্রম বন্ধের জোর দাবী জানিয়েছেন।
রেলওয়ের ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা রেজওয়ানুল হক বলেন, ফিল্ড কানুঙ্গ গোলাম নবী উলিপুর থানায় এজাহার দাখিল করেছে। তবে মামলা হয়েছে কিনা জানিনা।
মামলার বাদী বামনডাঙ্গা রেলওয়ের এস,এস এ ই/ওয়াকর্স সাঈদুর রহমান চৌধুরীকে মুঠো ফোনে একাধীকবার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।
লীজ নেয়ার বিষয়ে রেলওয়ের বিভাগীয় যোন লালমনিরহাটের ডি,আর,এম নাজমুল ইসলাম জানান, লীজ কাউকে দেয়া হয়নি। আমি যতটুকু জানি মামলাটি সঠিক ভাবেই হয়েছে।
তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই আতাউর রহমান জানান, মামলাটির দ্রুত চার্জসীট দেয়া হবে এবং মামলা রুজু করতে বিলম্ব হওয়া কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাকেই দায়ী করেন তিনি।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪