**   উলিপুর ফুটবল টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডের খেলা অনুষ্ঠিত **   ঐক্যফ্রন্ট ছাল-বাকলের তৈরি: প্রধানমন্ত্রী **   সাঈদা মুনা তাসনিম যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের নতুন হাই কমিশনার **   ব্যারিস্টার মইনুলের কাছে ক্ষমা চাইতে মাসুদা ভাট্টিকে আইনি নোটিশ **   মেয়াদোত্তীর্ণ নেতাদের ভাড়া করে ঐক্য করেছে বিএনপি : হাছান মাহমুদ **   চিলমারীতে সোনালী ব্যাংক ম্যানেজারের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠিত **   কুড়িগ্রামে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত **   চিলমারীতে কৃষি প্রনোদনা কর্মসূচীর আওতায় কৃষকদের মাঝে বিনামুল্যে বীজ ও সার বিতরণ **   উলিপুরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা **   ডা. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে এবার চুরির মামলা

ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা বানানোর কারিগর ওসমান গণির বিরুদ্ধে নাগেশ্বরীতে মুক্তিযোদ্ধাদের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের নাগেশ^রীতে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের নাম তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করার প্রতিবাদে যাচাই-বাছাই কমিটির সভাপতি ওসমান গণি, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বকর সরকারসহ ওই কমিটির সদস্যের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে মুক্তিযোদ্ধারা। এতে অংশগ্রহন করে নাগেশ^রী, ভূরুঙ্গামারী, রাজারহাট, উলিপুর, চিলমারী ও কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার প্রায় সহ¯্রাধিক বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড।
বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় প্রতীক মুক্তমঞ্চ থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে ফিরে দুপুর ১২টায় সমাবেশ করে। বীর মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান বীরবলের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন প্রধান অতিথি চিলমারী উপজেলা চেয়ারম্যান শওকত আলী সরকার বীরবিক্রম। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, ভূরুঙ্গামারী সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শামছুল আলম মতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন, আলাউদ্দিন, ফুলবাড়ী সাবেক উপজেলা কমান্ডার মজিববর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক, উলিপুর উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম রব্বানী, নুরুল ইসলাম, রাজারহাট উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসমাইল হোসেন, কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বাতেন, নাগেশ^রী উপজেলা সাবেক কমান্ডার আ.ন.ম মুসা, সাবেক কমান্ডার মতিয়ার রহমান মতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা বেলায়েত হোসেন, নওশাদ আলী, হযরত আলী, নুর মোহাম্মদ নুরু, এটিএম আজাদ আলী, আব্দুল জলিল, আব্দুল খালেক, মজিবর রহমান বঙ্গ প্রমুখ।
তারা বলেন, গত ২৭ এপ্রিল  প্রকাশিত তালিকায় ২২৪ জনের মধ্যে হাতে গোনা কয়েকজন ছাড়া অধিকাংশই রাজাকার, আলবদর, আলশামস, তৎকালীন মুসলীমলীগ ও জামায়াতী ইসলামীসহ স্বাধীনতা বিরোধী এবং অনেকেই মুক্তযুদ্ধকালীন শিশু ছিলেন। তাদের কাছে মোটা অংকের টাকা নিয়ে যাচাই-বাছাই কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রিয় কমান্ড কাউন্সিলের সহ-সাংগাঠনিক সম্পাদক ওসমান গণি ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বকর সরকারসহ ওই কমিটির একাধিক সদস্য অবৈধভাবে নাম অন্তর্ভূক্ত করান। এ অপকর্মের মাধ্যমে তারা কয়েক কোটি টাকার বাণিজ্য করে।
স্বাধীনতা বিরোধীদের মুক্তিযোদ্ধা বানানোর এ নোংরা কাজে জড়িত যাচাই-বাছাই কমিটির সভাপতি ওসমান গণি, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বকর সরকারের প্রতি তারা ঘৃণা প্রকাশ করে তাদেরকে নাগেশ^রীতে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন। তাদের শাস্তি দাবী করেন তারা এবং বিতর্কিত এ তালিকা সংশোধন করে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের নাম অন্তর্ভূক্ত করতে সংশ্লিস্ট কর্তৃপক্ষসহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তারা।
জানা যায়, অনলাইন, কেন্দ্রিয় কমান্ডসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে বিভিন্ন সময় স্বহস্তে আবেদিত প্রায় সাড়ে ১২শত জনের মধ্য থেকে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই ও তালিকাভূক্ত কিছু মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ নিষ্পত্তি করতে কেন্দ্রীয়ভাবে গঠিত ছয় সদস্যের যাচাই-বাছাই কমিটির ২১-২৭ জানুয়ারী পর্যন্ত কাজ করার কথা থাকলেও তা চলে এপ্রিল মাস জুড়ে। এ কমিটির সভাপতি ওসমান গণি, সদস্য সচিব ছিলেন তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হায়াত মো. রহমতুল্লাহ। অন্যন্য সদস্যরা হলেন সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বকর সরকার, কুড়িগ্রাম জেলা কমান্ডের সহকারী কমান্ডার আব্দুল হক, আজিজুল হক ও জামুকা প্রতিনিধি।
উল্লেখ্য, ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার নাম তালিকাভূক্তির প্রতিবাদে এবছরের ২৪ মে আরও একটি বিক্ষোভ সমাবেশ করে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধারা। এরই প্রেক্ষিতে নিজেদের অপকর্র্ম ঢাকতে গত ৯ জুলাই দুপুরে নতুন তালিকাভূক্তদের নিয়ে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে একটি পাল্টা সমাবেশ করে যাচাই-বাছাই কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রিয় কমান্ডের সহ-সাংগাঠনিক সম্পাদক ওসমান গনি, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বকর সরকার।
অপরদিকে মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেনি এমন ব্যক্তিদের টাকার বিনিময়ে মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করায় কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে প্রতিবাদ সভা করেছে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।
বৃহস্পতিবার বিকালে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মিলনায়তনে সাবেক উপজেলা কমান্ডার মহি উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে এই প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা কমান্ডার শামসুল আলম মতি, ডেপুটি কমান্ডার আলমগীর হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক জেল সুপার নূরুল ইসলাম, আব্দুল কাদের ও শাহজাহান আলী সাজু।
প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, চলতি বছরে ২৫৫ জনের যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে তার মধ্যে প্রায় দুইশতাধিক ব্যক্তিকে মুজিব নগর সরকারের কর্মচারী দেখানো হয়েছে। প্রকৃত পক্ষে ওই ব্যক্তিরা মুজিব নগর সরকারের কর্মচারী ছিলেন না। তালিকা ভূক্ত ওই সকল ব্যক্তি ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা। দ্রুত ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ দেয়ার দাবী জানান তারা।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪