**   ‘ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন বুমেরাং হতে বাধ্য’ **   ফরাসউদ্দিন-ছহুল এগুলো ইউসলেস নেইম: অর্থমন্ত্রী **   কুড়িগ্রামে পুলিশ কর্মকর্তাদের নিয়ে শিশু আইন-২০১৩ শীর্ষক প্রশিক্ষণ **   চিলমারীতে থানাহাট পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান ফটক, সততা স্টোর উদ্বোধন ও বিদায়ী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত **   চিলমারীতে মিনা দিবস উদযাপন **   উলিপুরে মিনা দিবস পালিত **   উলিপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় শিশুর মৃত্যু **   কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট জেলা পুলিশের উদ্যোগে আঞ্চলিক মহাসড়কে দুর্ঘটনা রোধকল্পে মতবিনিময় **   শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে আফগানদের হারালো বাংলাদেশ **   সরকারি হাইস্কুলে পদোন্নতি: সিনিয়র শিক্ষক হচ্ছেন ৫৫০০ জন

বাংলাদেশে প্রথম পরিবেশ-বান্ধব বিদ্যুৎ প্লান্ট নির্মাণ করছে চীন

যুগের খবর ডেস্ক: বাংলাদেশের পটুয়াখালি জেলায় অত্যাধুনিক পরিশোধন কয়লা প্রযুক্তি-সংবলিত পরিবেশ-বান্ধব বিদ্যুৎ প্লান্ট নির্মাণ করছে। রাজধানী ঢাকা থেকে প্রায় ২০৪ কিলোমিটার দূরে প্রকল্পটি নির্মিত হচ্ছে। এ ধরনের প্রকল্প বাংলাদেশে এই প্রথম। এ খবর দিয়েছে চীনের সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া।
গত বছরের মার্চ মাসে বাংলাদেশ ১৫৬ কোটি ডলারের প্রকৌশল, ক্রয় ও নির্মাণ (ইপিসি) চুক্তি করে চীনা দুটি কোম্পানির সমন্বয়ে গঠিত দুটি চীনা প্রতিষ্ঠানের সাথে।
চায়না এনার্জি ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ নর্থইস্ট নম্বর ১ ইলেকট্রিক পাওয়ার কনস্ট্রাকশন কো. লি. (এনপিইসি) এবং চায়না ন্যাশনাল এনার্জি ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন কো. লি. (সিইসিসি) এবং চায়না মেশিনারি ইম্পোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট করপোরেশন (সিএমসি) এবং বাংলাদেশ নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লি. (এনডব্লিউপিজিসিএল)-এর যৌথ উদ্যোগ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ-চায়না পাওয়ার কোম্পানি লি. (বিসিপিসিএল)-এর কর্মকর্তারা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে চুক্তিতে সই করেন।
এই প্রকল্প থেকে ১,৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হবে। প্রথম ধাপে ২০১৯ সালে দুটি ইউনিট উৎপাদনে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।
বাংলাদেশের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নাসরুল হামিদ সম্প্রতি নির্মাণ এলাকা পরিদর্শন করে কাজের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন।
তিনি বলেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের নিজস্ব অর্থায়ন, চীন সরকারের অর্থায়ন এবং চীনা এক্সিম ব্যাংকের অর্থায়নে এই বিদ্যুৎ প্রকল্পটি নির্মাণ করছি। আমরা প্রকল্পটির অগ্রগতিতে সন্তুষ্ট।’
তিনি বলেন, ‘চীনা কোম্পানিগুলো নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তাদের কাজ সম্পন্ন করে। তাদের কাজের মান ভালো।’
তিনি বলেন, ‘আমরা এই প্লান্টে ব্যয়সাশ্রয়ী সুবিধা পাব। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে যেসব বিদ্যুৎ প্লান্ট নির্মিত হয়েছে, এটি তার মধ্যে সবচেয়ে ভালো।’
পুরো প্রকল্পের মোট ব্যয় ১৫৬ কোটি ডলার। এটি ৩৯৭ হেক্টর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ২০৩০ সাল নাগাদ ৪০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যে বেশ কয়েকটি কয়লা-চালিত বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থাপনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। কর্মকর্তারা বলছেন, কনসোর্টিয়াম একই এলাকায় একই সক্ষমতা ও প্রযুক্তির আরেকটি মেগা প্রকল্প, ১০০ মেগাওয়াট সৌর এবং ৫০ মেগাওয়াটের বাতাস-চালিত বিদ্যুৎ প্লান্ট নির্মাণের পরিকল্পনা করছে। বাংলাদেশের বিদ্যুৎ উৎপাদন ও বিদ্যুৎ প্রবৃদ্ধিতে এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪