**   লাইন্সেস, পরিবেশ সনদ ছাড়াই ডায়াগনোষ্টিক সেন্টারের হাট ।। উলিপুরে প্রতারিত হচ্ছে রোগিরা **   এবার ‘রেস ফোর’ নিয়ে আসছেন সালমান! **   জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল থেকে বেরিয়ে গেল যুক্তরাষ্ট্র **   আন্দোলন নয়, নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে বিএনপির প্রতি আহ্বান নাসিমের **   শেষ ষোলোয় রাশিয়া, বিদায় মিসরের **   সিটি করপোরেশন নির্বাচন সবার দৃষ্টি গাজীপুরে **   দেহ ব্যবসায় জড়িত সাদিয়া! **   প্রকল্প কাজে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ ॥ ব্রহ্মপুত্রের ডানতীর রক্ষা প্রকল্পে ফের ধস ॥ একদিনে ১২ পরিবারের ১৭ঘর নদীতে **   ১০ জনের কলম্বিয়াকে হারালো জাপান **   উলিপুরে সহিংসতা না করার শপথ করলেন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ

ভূরুঙ্গামারীতে লোডশেডিং আর লো ভোল্টেজ বিপাকে কৃষক ও এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

pic.3

ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: ভূরুঙ্গামারীতে লোডশেডিং আর লো ভোল্টেজের কারণে বোরো ধান চাষে ভোগান্তিতে পড়েছে কৃষকরা। পাশাপাশি বিপাকে পড়েছে উপজেলা থেকে চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করা পরীক্ষার্থীরা।
উল্লেখ্য, এক মাসের অধিক সময় ধরে উপজেলা সদরের সামান্য এলাকায় দিনের কিছু সময় বিদ্যুৎ থাকলেও গোটা উপজেলা জুড়ে চলছে সীমাহীন লোডশেডিং। জানাগেছে, চলতি বছর কুড়িগ্রামে ভূরুঙ্গামারীতে ১৪ হাজার ২শ ৮ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। লোডশেডিং ও লো ভোল্টেজের কারণে বোরো ধানের চারা রোপনের জন্য জমি প্রস্তুত করতে প্রয়োজনীয় সেচ দিতে পারছেন না কৃষকরা। ফলে বীজতলায় নষ্ট হচ্ছে চারা। কেউ কেউ চারা রোপন করলেও পর্যাপ্ত সেচ দিতে না পারায় সদ্য রোপন করা ক্ষেত শুকিয়ে মারা যাচ্ছে রোপনকৃত চারাগুলো।
রাত দশটার দিকে সামান্য বিদ্যুতের দেখা মিললেও তখন ভোল্টেজ থাকে কম। এ সময় উপজেলার সকল সেচ যন্ত্র চালু হওয়ায় স্বাভাবিক অবস্থার চেয়ে কম পরিমান পানি উঠে এবং ব্যয় হয় অধিক সময়। অপরদিকে সন্ধ্যা থেকে নয়টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকে না। মাঝে-মাঝে বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করায় ও ভোল্টেজ কম থাকার কারণে চলমান এসএসসি পরীক্ষার্থীদের শেষ সময়ের প্রস্তুতি গ্রহনে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। বিদ্যুতের সাথে সম্পর্কযুক্ত ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো অচল হয়ে পড়েছে। এছাড়া ঘন ঘন ভোল্টেজ পরিবর্তিত হওয়ায় ফ্রিজ, টিভিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য নষ্টের মাত্রা অধিক হারে বেড়ে গেছে। পাইকের ছড়া ইউনিয়নের কৃষক আব্দুল মজিদ কাজী জানান, বিদ্যুৎ না থাকায় পানির অভাবে জমি তৈরী করা যাচ্ছেনা। শিলখূড়ী ইউনিয়নের কৃষক আবু হানিফ ও তিলাই ইউনিয়নের কৃষক নূরুন্নবী জানান দিনের বেলা বিদ্যুৎ থাকে না, রাতে ভোল্টেজ কম থাকায় পানি নিচে নেমে যায় ফলে পানি কম উঠে, সেচ যন্ত্রের কয়েল ও ক্যাপাসিটার পুড়ে যাচ্ছে।
এসএসসি পরীক্ষার্থী তাসিফুর হক, মিঠু, রাজু ও মাইদুল জানান সন্ধ্যায় বিদ্যুৎ না থাকায় চার্জা লাইট বা মোমবাতি জ্বালিয়ে পরীক্ষার প্রস্তুতি গ্রহন করতে হয়। অনেক সময় চার্জারে চার্জ থাকেনা। প্রতিদিন মোমবাতি জ্বালানো ব্যয়বহুল হওয়ায় তারা ভোগান্তিতে পড়েছে।
ভূরুঙ্গামারী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের এজিএম বাজলুল কামাল জানান, মেরামত কাজ চলায় কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখা সম্ভব হয়নি। বর্তমান পরীক্ষা ও সেচের কারণে মেরামত কাজ বন্ধ রাখার সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ফলে এখন আর সমস্যা হবেনা।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪