প্রতারণা করে ক্ষমতায় টিকতে পারবেন না: ফখরুল

যুগের খবর ডেস্ক: দেশের গণতন্ত্র আর মানুষের সাংবিধানিক অধিকার ধ্বংস করার জন্যই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, ‘এই একমাত্র রাজনৈতিক দল যারা এর আগেও গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে বাকশাল কায়েম করেছিল। আর এখনও নিজেদের লেবাস আর কাপড়টা পরিবর্তন করে বাকশাল কায়েম করেছে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাবে শুক্রবার খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘সরকারি খরচে ৭ মার্চ পালন করেছে সরকার। এটা খুব ভালো কথা। সরকারিভাবে ঢাকঢোল পিটিয়ে, গোটা ঢাকা শহরকে সজ্জিত করে, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের বিলবোর্ড, ব্যানার লাগিয়ে জনসভা করলেন। কিন্তু বিএনপির সমাবেশ করতে দিচ্ছেন না। এখানে তারা বাধা দিচ্ছে। প্রতিটি কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে হয়ে আসছে। তারপরও প্রতিটি কর্মসূচিতে বাধা দেওয়া হয়েছে। এমন কোনো কর্মসূচি নেই, যেখানে আপনারা বাধা দেননি। শুধু ঢাকায় নয়, সারা দেশেই। এমনও জেলা আছে, যেখানে দাঁড়াতেই দেননি। অথচ আপনারা বললেন, শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বিশ্বাস করি, এ ধরনের কর্মসূচিতে বাধা দিই না। এটা জনগণের সঙ্গে প্রতারণা। এই প্রতারণা করে আপনারা বেশি দিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারবেন না।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বিপন্ন হয়ে পড়েছে। দলের ঐক্য আরও দৃঢ় করতে হবে। জনগণের ঐক্য সৃষ্টি করার মধ্যে দিয়ে এবং সব রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের ঐক্য সৃষ্টি করার মধ্য দিয়ে দুর্বার গণ-আন্দোলনের মধ্য দিয়ে এই দানবীয় সরকারকে সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে।’

খালেদা জিয়াকে বাইরে রেখে যারা নির্বাচনের কথা ভাববে, তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না উল্লেখ বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে অবশ্যই মুক্তি দিতে হবে এবং দেশনেত্রীকে নিয়েই নির্বাচনে যাব। নির্বাচনে প্রহসন চলবে না।’

তিনি বলেন, ‘জনগণ ভয়াবহ দুঃশাসনের কবলে পড়েছে। এখন কোনো মানুষের অধিকার নেই। জীবনের নিশ্চয়তা নেই। অর্জিত ভোটের অধিকার নেই। এর থেকে পরিত্রাণ পেতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

নির্বাচন কমিশন সরকারের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাচ্ছে দাবি করে ফখরুল বলেন, ‘সরকার যা চাইছে, নির্বাচন কমিশন সে কথাটাই বলে দিয়েছেন। তারা বলেছে, অন্য দলগুলোকে নির্বাচনে আনার উদ্যোগ গ্রহণ করব না। এটা তো বলবেনই। কারণ আপনাদের বসানো হয়েছে আওয়ামী লীগ যাতে ক্ষমতায় যেতে পারে তার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করার জন্য। তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য।’

জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. টি আই এম ফজলে রাব্বী চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য দেন দলটির মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, জাগপার সভাপতি অধ্যাপক রেহানা প্রধান প্রমুখ।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪