সেরার মতোই জিতলো ভারত

ক্রীড়া প্রতিবেদক: ভারত শেষ কয়েকটি টি২০সিরিজে পরপর ম্যাচ হারেনি। প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে হারের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতে নিজেদের রেকর্ডটা অক্ষুন্ন রেখেছিল। আর স্বাগতিক শ্রীলংকার বিপক্ষে দ্বিতীয় দেখায় নিদাহাস ট্রফির সবচেয়ে উচ্চারিক শব্দ ‘ফেবারিট’ তকমা পাওয়া ভারত ফেবারিটের মতোই জিতলো। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর মতে, প্রথম ম্যাচে হারের প্রতিশোধ নিলো রোহিত শর্মার দল। উঠে গেল পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে।

ভারতের ম্যাচ নিয়ন্ত্রনে নেওয়ার শুরু শারদুল ঠাকুরের হাত ধরে। টি২০ তে ম্যাচ খেলেছেন মাত্র পাঁচটি। কিন্তু তাতেই দক্ষিণ আফ্রিকার পর শ্রীলংকায় বুঝিয়ে দিলেন কতটা পরিণত তিনি। টি২০ ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো  শিকার করলেন চার উইকেট। আর তাতেই হাতের নাগালে ভারত আটকে দিল লঙ্কানদের।

ভারত প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও ম্যাচ নিজেদের করে নিলো শেষটায় এসে।প্রথমে যেমন ভালো রানের দিকে যাওয়া শ্রীলংকাকে মাঝখানে দারুণ বল করে আটকে দিল ভারতীয় বোলাররা। তেমিন ব্যাটে ভালো শুরু করতে না পারলেও শেষটায় এসে মানিশ পান্ডে আর দিনেশ কার্তিকের ব্যাটে সহজ করে ফেলল ম্যাচটা। নিশ্চিত করল কলম্বোয় অনুষ্ঠিক ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে ৬ উইকেটের সহজ জয়।হাতে ৯ বল রেখেই লক্ষ্যে পৌছে গেল রোহিত শর্মার দল।

কলম্বোর পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে সিরিজের চতুর্থ টি২০ তে বৃষ্টির কারণে ম্যাচ ১৯ ওভারে নেমে আসে। গত তিন ম্যচের মত টস জয়ী দল বল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভারতও টস জিতে বল করল । আগের দুই ম্যাচে অর্ধশতক পাওয়া শ্রীলংকার ওপেনার কুশল মেন্ডিস আজও দারুণ এক অর্ধশতক পেয়েছেন। মূলত তার ব্যাটিংয়েই শ্রীলংকার যা রান হয়েছে।

কিন্তু কুশল মেন্ডিস ৩৫ বলে তিন চার ও তিন ছয়ে ৫৫ রানে আউট হলে চাপে পড়ে লঙ্কানরা। এছাড়া শ্রীলংকার হয়ে গুনাথিলাকা ১৭, উপুল থারাঙ্গা ২২ ও থিসারা পেরেরা ১৫ রান করে আউট হয়ে যান। এরপরে আর কোন ব্যাটসম্যান ভারতের বোলারদের সামনে দাঁড়াতে পারেনি। শেষের দিকে দাশুন শানাকা ১৬ বলে ১৯ রানের ইনিংসটি না খেললে ১৫২ রানও করতে পারতো না স্বাগতিকরা।

শ্রীলংকার ব্যাটিং মূলত একাই ধসিয়ে দিয়েছে শারদুল ঠাকুর। তিনি ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে ২৭ রানের খরচায় ৪ উইকেট নিয়েছেন। এছাড়া ওয়াশিংটন সুন্দর দুটি এবং জয়দেভ উদানকাতরা ও বিজয় শঙ্কর একটি করে উইকেট নেন।   রান তাড়ায় দ্রুত ফিরেন ভারতের দুই ওপেনার। পরপর দুই ওভারে রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়াকে বিদায় করেন আকিলা দনঞ্জয়া।

এরপর সুরেশ রায়নার ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলেও তিনি ১৫ বলে দুটি করে ছক্কায় ২৭ রান করে আউন হয়ে যান। রায়নার পর দলীয় ৮৫ রানে রাহুল আউট হয়ে গেলে ভারতের জয় নিয়ে সামান্য ধুয়াশা তৈরি হয়। কিন্তু মানিশ পান্ডের অপরাজিত ৪২ ও দিনেশ কার্তিকের ৩৯ রানে সহজে জয় নিশ্চিত করে ভারত।শ্রীলংকার হয়ে সেরা বোলার ধনাঞ্জয়া। তিনি ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে ১৯ রানে ২ উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা: ১৯ ওভারে ১৫২/৯ (মেন্ডিস ৫৫, গুনাথিলাকা ১৭, থারাঙ্গা ২২, থিসারা ১৫,শানাকা ১৯; ওয়াশিংটন ২/২১, শারদুল ঠাকুর ৪/২৭)

ভারত: ১৭.৩ ওভারে ১৫৩/৪ ( রাহুল ১৮, রায়না ২৭, পান্ডে ৪২ (অপ.), কার্তিক ৩৯ (অপ.); দনঞ্জয়া ২/১৯,)

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪