‘নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছে জনগণ’

যুগের খবর ডেস্ক: কোটা সংস্কার আন্দোলনের মতো সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্যও মানুষ আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।
তিনি বলেছেন, সময় হলেই জনগণ মাঠে নেমে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে তার নেতৃত্বে দেশে ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করবে।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে নাগরিক কণ্ঠ আয়োজিত আলোচনা সভায় খন্দকার মোশাররফ এসব কথা বলেন।
খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের যে দাবি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা, ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন, এগুলোর সাথে সরাসরি জনগণ সম্পৃক্ত। এই জনগণ কিন্তু এটার জন্য অপেক্ষা করছে সময়ের।’
কোটা সংস্কার আন্দোলন প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, ‘ছাত্রদের আন্দোলনও কিন্তু নিজেদের দাবি নিয়ে তারা নেমে এসেছিল। কারোর ডাকার প্রয়োজন হয় নাই। ইনশাআল্লাহ সময় আসছে যখন জনগণ রাস্তায় নেমে এ দেশে আগামী সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে তার নেতৃত্বে আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে ইনশাআল্লাহ।’
বিএনপির চেয়ারপারসনের মুক্তির দাবিতে আয়োজিত এই আলোচনা সভায় খন্দকার মোশাররফ বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে তার নেতৃত্বেই নির্দলীয় সরকারের দাবি আদায় করবে বিএনপি।
মোশাররফ হোসেন বলেন, সরকার কোটা সংস্কারের আন্দোলনকে সমর্থন করেনি। তাই সরকারের পেটুয়া বাহিনী দিয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা করেছে। আন্দোলন সমর্থন করলে প্রথমেই তারা দাবি মেনে নিত। শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবির কাছে মাথা নত ও পরাজয় স্বীকার করে সরকার কোটা প্রথা বাতিল করেছে।
সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার পরও একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। একদলীয় শাসন তাদের রক্তে মিশে আছে। আওয়ামী লীগ জানে তারা জনগণের কাছে যেতে পারবে না। গেলে তাদের অস্তিত্ব বিলীন হয়ে যাবে। সরকার গায়ের জোরে ক্ষমতায় আছে বলে জনগণকে ভয় পায়। কারণ দেশের মানুষ তাঁদের ভোট দিবে না। তাই নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ভোট দিতে ভয় পায়।
সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, আমরা খালেদা জিয়াকে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করব। যে নির্বাচনে দেশের মানুষ ভোট দিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পারবে। সরকার আদালতকে ব্যবহার করে মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়ার কারাবাস দীর্ঘ করছে, এটা শুধু রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে।
বিএনপির এ নেতা আরো বলেন, সরকারের নির্দেশেই আদালত খালেদা জিয়ার জামিন বিলম্বিত করছেন। সব সময় হাইকোর্ট আপিল গ্রহণ করার সঙ্গে সঙ্গে জামিন আবেদন মঞ্জুর করতেন। কিন্তু খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে তা না করে নিম্ন আদালতের নথি তলব করে কারাবাস দীর্ঘায়িত করছে। হাইকোর্ট জামিন মঞ্জুর করলেও আপিল বিভাগ তা স্থগিত করে দীর্ঘ তারিখ দিল। এসব কিছু হয়েছে সরকারের নির্দেশে।
আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমান, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, বিএফইউজের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪