ব্যাংক পেলো পুলিশ

যুগের খবর ডেস্ক: ‘কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ’ নামে নতুন একটি ব্যাংক পেলো বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট (বিপিডব্লিউটি)। সরকারের উচ্চপর্যায়ের চাপে নতুন করে চারটি বাণিজ্যিক ব্যাংককে অনুমোদন দেওয়ার কথা থাকলেও কাগজপত্র ঘাটতি থাকায় বাকি তিনটিকে অপেক্ষায় রাখলো বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে ঘাটতি পূরণ করলে বাকি তিনটি ব্যাংকের পরবর্তী পর্ষদ সভায় অনুমোদন পাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সোমবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভা শেষে রাত ৮টা ৩০ মিনিটে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম।
তিনি বলেন, পর্ষদের সভায় চারটি ব্যাংকের প্রস্তাব তোলা হয়। একটি ব্যাংকের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে। বাকি তিনটি শর্ত সাপেক্ষে অনুমোদনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। তাদের প্রস্তাবে ও নথিপত্রে কিছু ঘাটতি ও ত্রুটি রয়েছে। সেগুলো সংশোধন করে দিলেই পর্ষদ অনুমোদন দেবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশের উদ্যোগে কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ চালু করার প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট। এরই মধ্যে এ ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত মিলেছে। আজ (সোমবার) চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের উদ্যোক্তা পরিচালক তিনজনের বিষয়ে উচ্চ আদালতে করসংক্রান্ত মামলা চলছে। সেগুলো নিষ্পত্তি করে আমাদের জানালে পর্ষদ সেটির অনুমোদন দেবে। এ ব্যাংক চালুর উদ্যোগ নিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি জসীম উদ্দিন। তিনি বেঙ্গল গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান। প্রস্তাবিত পিপলস ব্যাংকের চেয়ারম্যান হলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা এম এ কাশেম। এ ব্যাংকের উদ্যোক্তা এম এ কাশেমের বিদেশে কি পরিমাণ সম্পত্তি রয়েছে, তা আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জমা দিতে হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সেটি বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠালে তা পর্ষদে উপস্থাপন করা হবে। পর্ষদ সেটি বিবেচনা করে ব্যাংক স্থাপনের আগ্রহপত্র (লেটার অব ইনট্যান্ট) দেবে। সিরাজুল ইসলাম বলেন, সিটিজেন ব্যাংকের প্রস্তাবে কিছু ঘাটতি রয়েছে। সেগুলো ঠিকঠাক করে উপস্থাপন করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নতুন অনুমোদন পাওয়া কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংকসহ মোট ব্যাংকের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৯টিতে। অপেক্ষায় থাকা বাকি তিনটি ব্যাংক হলো বেঙ্গল ব্যাংক, পিপলস ব্যাংক এবং সিটিজেন ব্যাংক।
এর আগে পুলিশের উদ্যোগে ‘কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ’ চালু করার প্রস্তাব করে বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট (বিপিডব্লিউটি)। অপর তিন ব্যাংকের পৃষ্ঠপোষকদের সঙ্গে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সখ্যতা রয়েছে। ‘বেঙ্গল ব্যাংক’ চালুর উদ্যোগ নিয়েছে দেশীয় প্লাস্টিক পণ্য প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল গ্রপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ। আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মোর্শেদ আলম এ গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং প্রস্তাবিত ব্যাংকটির চেয়ারম্যান হলেন তার ছোট ভাই জসীম উদ্দিন। প্রস্তাবিত ‘পিপলস ব্যাংক’ এর চেয়ারম্যান হলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা এম এ কাশেম। এছাড়াও আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের মা জাহানারা হক ‘সিটিজেন ব্যাংক’র চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন।
গত বছর অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে চাপ আসা সত্ত্বেও নতুন ব্যাংকের লাইসেন্স দেওয়ার প্রস্তাবটি স্থগিত রাখে বাংলাদেশ ব্যাংক। বিশেষজ্ঞরা এখনও এ পদক্ষেপের বিরোধিতা করে বলছেন, ‘এই সেক্টরটি এমনিতেই মাত্রাতিরিক্ত শোষণের শিকার। সামগ্রিকভাবে এর স্বাস্থ্য ভেঙে পড়েছে। সম্প্রতি নতুন ব্যাংকগুলো বন্ধ হয়ে যাওয়া এর সবচেয়ে বড় প্রমাণ।’ কিন্তু অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতসহ সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে ক্রমাগত আসতে থাকা চাপে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিরোধ আর বেশি দীর্ঘায়িত হয়নি। অর্থমন্ত্রী সর্বশেষ ২৫ সেপ্টেম্বরও এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণের তাগিদ দেন।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, ২০১৩ সালে লাইসেন্স পাওয়া ১১টি ব্যাংক নিট মুনাফার ১০ শতাংশ সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচিতে (সিএসআর) ব্যয়, মোট ঋণ ও অগ্রিমের পাঁচ শতাংশ বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন সময় জারি করা নির্দেশনা মোতাবেক কৃষি ও পল্লী ঋণে বিনিয়োগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। যাত্রা শুরুর তিন বছরের মধ্যে গণপ্রস্তাব ইস্যু করতে বলা হয়েছিল। তবে কোনো ব্যাংকই বাংলাদেশ ব্যাংকের এসব নির্দেশনা পালন করতে সক্ষম হয়নি। সেজন্য নতুন করে তিনটি ব্যাংকের লাইসেন্স দিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কোনো আগ্রহ নেই।
নতুন তিনটি ব্যাংকের লাইসেন্স দিতে অর্থমন্ত্রী বিভিন্ন সময় বাংলাদেশ ব্যাংককে দেওয়া চিঠিতে লিখেছেন, ২০১৩ সালের অক্টোবরে আমরা ১১টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের লাইসেন্স দিয়েছি। সেই সময়ে আমার ভুলে চূড়ান্ত তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি পিপলস ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড। এর উদ্যোক্তা নিউইয়র্ক প্রবাসী সন্দ্বীপের এম এ কাশেম। এ ব্যাংকটির লাইসেন্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যে আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে নিয়েছি। এছাড়াও বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের প্রধান উদ্যোক্তা বেঙ্গল গ্রুপের জসিম উদ্দিন। ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির স্ত্রীর নামে নড়াইলে তার পৈতৃক বাড়িতে একটি দাতব্য চিকিৎসালয় প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। সেই হাসপাতালের ব্যয় নির্বাহের জন্য এ ব্যাংকটির সিএসআরের অর্থ ব্যয় করা হবে।
বাংলাদেশ ব্যাংকও অর্থমন্ত্রীর এ প্রস্তাব নাকচ করে বলেছিল, ব্যাংক কোম্পানি আইন ১৯৯১ এর ৩১ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতা বলে দেশে নতুন ব্যাংক স্থাপনের লাইসেন্স প্রদানের বিষয়টি বাংলাদেশ ব্যাংকের এখতিয়ারভুক্ত। নতুন ব্যাংক স্থাপনের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলে বাংলাদেশ ব্যাংক ওয়েবসাইট ও পত্রপত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দরখাস্ত আহ্বান করে এবং দাখিলকৃত আবেদন বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুসৃত প্রথার আলোকে পর্যালোচনা/বিশ্লেষণ পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক নিষ্পত্তি করা হয়। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক আরও বলেছিল, আবেদনপত্র দুটির বিপরীতে নতুন ব্যাংক প্রতিষ্ঠার অনুমোদন দিলে বাংলাদেশ ব্যাংক গৃহীত কার্যক্রমের স্বচ্ছতা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠবে। ফলে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি এইচ, এম রহিমুজ্জামান সুমন
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল্ আমিন সরকার্
নির্বাহী সম্পাদকঃ নাজমুল হুদা পারভেজ
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ফোনঃ ০৫৮২৫-৫৬০১৭, ফ্যাক্স: ০৫৮২৪৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩, ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচ¬িত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৪