আজকের তারিখ- Mon-27-06-2022
 **   পদ্মা সেতুর নিরাপত্তা জোরদারে সেনাবাহিনীকে চিঠি **   চিলমারীতে জালনোট প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধিমূলক ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত **   চিলমারীতে মাদক বিরোধী মানববন্ধন, র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত **   চিলমারীতে নদীর ভাঙ্গন রোধ কার্যক্রমের উদ্বোধন করলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী **   পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে চিলমারীতে আওয়ামী লীগের আনন্দ শোভাযাত্রা **   পদ্মা সেতু উদ্বোধন: প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ সাকিব-তামিমদের **   ভাগ্য পরিবর্তনে যেকোনো ত্যাগ করতে প্রস্তুত: প্রধানমন্ত্রী **   পদ্মা সেতু স্পর্ধিত বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি: প্রধানমন্ত্রী **   পদ্মা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী **   পদ্মা সেতু: শেখ হাসিনার দৃঢ়তার বহিঃপ্রকাশ

ভাঙনের মুখে মৌসুমী-সানীর সংসার

বিনোদন ডেস্ক: কোটি মানুষের হৃদয়ে লালিত স্বপ্নের নাম মৌসুমী। যার ইশারায় হাজারো পুরুষ চোখ মেলে তাকিয়ে থাকতে পারে অনন্তকাল। যার কোমরের বিছার আওয়াজ ৩০ বছর পরও ঘুম ভাঙিয়ে দেয় আট থেকে আশিকেও। সম্পর্কের গুঞ্জনে সেই মৌসুমীর ২৭ বছরের দাম্পত্য জীবন ইতির পথে। অভিযোগের তীর শিল্পী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের দিকে। তবে মৌসুমী নন, অভিযোগ এনেছেন স্বামী এক সময়ের জনপ্রিয় নায়ক ওমর সানী। অপরদিকে তার এমন অভিযোগে পানি ঢেলেছেন মৌসুমী। পাল্টা স্টেটমেন্টে জানিয়েছেন, ‘সে (জায়েদ) কখনই আমাকে অসম্মান করেনি।’

জানা গেছে, চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে প্রায় চার মাস ধরে বিরক্ত করছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান, এমন অভিযোগ অভিনেত্রীর স্বামী ওমর সানীর। এই নিয়ে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে রবিবার লিখিত অভিযোগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি।

অভিযোগপত্রে ওমর সানী উল্লেখ করেন, সমিতির সদস্য জায়েদ খান চার মাস ধরে আমার স্ত্রী আরিফা পারভীন জামান মৌসুমীকে নানাভাবে হয়রানি ও বিরক্ত করে আসছে। আমার সুখের সংসার ভাঙার জন্য বিভিন্ন কৌশলে তাকে হেয়প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করে আসছে। এ ব্যাপারে তাকে হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ দিয়ে বারবার বোঝানোর চেষ্টা করেছি। তার প্রমাণ আমার এবং আমার ছেলের কাছেও আছে।

ওমর সানী আরো লেখেন, মুরব্বি হিসেবে আমি ডিপজল ভাইয়ের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করেছি। কিন্তু ওই বিষয়ের কোনো সমাধান হয়নি। ডিপজল ভাইয়ের ছেলের বিয়েতে জায়েদ খানের সঙ্গে দেখা হলে এ বিষয়ে সংযত হওয়ার জন্য আমি অনুরোধ করি। এতে সে আমার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এবং হঠাৎ করে তার পিস্তল বের করে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। অতএব আমি মনে করি এমন একজন পিস্তলধারী সন্ত্রাসী বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য থাকতে পারে না।

একইসঙ্গে উল্লিখিত বিষয়ে বিশেষভাবে বিবেচনাপূর্বক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ‘আখেরি হামলা’খ্যাত এই অভিনেতা শিল্পী সমিতির প্রতি আহ্বান জানান।

এ প্রসঙ্গে শিল্পী সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, বিষয়টি একেবারেই ওদের ব্যক্তিগত। শিল্পী সমিতি কোনোভাবেই এর সঙ্গে যুক্ত নয়। তারপরও ওরা লিখিত দিলে বৈঠক ডেকে কথা বলা যেতে পারে। মনে রাখতে হবে ওরা আমাদের সদস্য কারো সম্মান যেন নষ্ট না হয়, সেটাও আমরা দেখবো।

তবে ঘটনা আপাতত এতেই থেমে থাকছে না। ওমর সানী আজ সোমবার আজকালের খবরের কাছে দাবি করেছেন, ‘সব প্রমাণ আছে, সময় হলে আমার ছেলেই সব দেখাবে।’

এ মুহূর্তে (আজ সন্ধ্যায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত) কোথায় আছেন জানতে চাইলে ওমর সানী বলেন, এ মুহূর্তে বাসায় ঘুমাচ্ছিলাম, তোমার ফোনে উঠলাম।

মৌসুমী কোথায় জানতে চাইলে সানী বলেন, ও বাসাতেই আছে। আমিও আছি।

ছেলে ফারদিন আপনাদের টানাপড়নের বিষয়টি কীভাবে দেখছে? জবাবে সানী বলেন, আসলে এটা বিব্রতকর বিষয়। প্রয়োজন হলে ও (ফারদিন) সব প্রমাণ করবে।

এদিকে মৌসুমীর সঙ্গে অশালীন আচরণের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত জায়েদ খান। গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমি মৌসুমী আপাকে হয়রানি ও বিরক্ত করেছি এটা তো আপাকে বলতে হবে, ওমর সানী ভাই বললে তো হবে না। উনি ছাড়া আর কেউ অভিযোগ করলে তো হবে না। আপা যদি একই অভিযোগ করেন, তাহলে যেকোনো সাজা মাথা পেতে নেবো। আপনারা আপার সঙ্গে যোগাযোগ করে তার বক্তব্য নেন। আমি কীভাবে উনাকে বিরক্ত করেছি। আপাকে শুধুই সম্মান করা যায়, উনি আমাদের দেশের গর্ব। আমি শিল্পী মানুষ উনাকে কেন বিরক্ত করবো?’

অপরদিকে পানি যখন ঘোলা হয়ে ঘূর্ণিপাকের সৃষ্টি করে চলছিল, তখনই হোয়াটস অ্যাপ অডিওবার্তায় নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা দিয়েছেন মৌসুমী।

সানীর দাবিকে ভিত্তিহীন দাবি করছেন তিনি। বলেন, আমি মনে করি আমার প্রসঙ্গটা টানার কোনো প্রয়োজন ছিল না। আমি জায়েদকে অনেক স্নেহ করি, ও আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে যতটুকু কাজের সম্পর্ক, সেটা খুবই ভালো একটা সম্পর্ক। সেখানে ও আমাকে অসম্মান করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আর ও এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে পারে, এমন কিছুই আমি দেখিনি। তারপর বলবো, ও অনেক ভালো ছেলে। সে কখনই আমাকে অসম্মান করেনি।

এই অভিনেত্রী আরো বলেন, কেন এই প্রশ্নটা বারবার আসছে, সে আমাকে বিরক্ত করছে-উত্ত্যক্ত করছে, এই জিনিসটা আমার আসলে… জানি না এটা কেন হচ্ছে। এটা যদিও একান্ত আমাদের ব্যক্তিগত সমস্যা। সে সমস্যা আমাদের পারিবারিকভাবেই সমাধান করা দরকার ছিল।

ওমর সানী প্রসঙ্গে মৌসুমী বলেন, এখানে জায়েদের খুব একটা দোষ আমি পাইনি। আরেকটা কথা বলতে চাই, আমাকে ছোট করার মধ্যে আমাদের… যাকে আমরা অনেক শ্রদ্ধা করে আসছি সেই ওমর সানী ভাই কেন এতো আনন্দ পাচ্ছেনÑ সেটা আমি বুঝতে পারছি না। আমার কোনো সমস্যা থাকলে অবশ্যই আমার সঙ্গে সমাধান করবে, সেটিই আমি আশা করি।
সবশেষে তিনি দাবি করেন, ওমর সানী একতরফা বলেছেন।কিন্তু তিনি অভিযোগ করছেন কি-না; এটা সবার জানা বেশি জরুরি। তার বক্তব্য ছাড়াই একতরফা বক্তব্য নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

এ নিয়ে কিংবদন্তি গীতিকার ও মৌসুমী-ওমর সানীর উকিল বাবা গাজী মাজহারুল আনোয়ারের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি কিছু বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন। জানান, অনেকদিন ওদের সঙ্গে যোগাযোগ নেই।

এদিকে অনুসন্ধান করে জানা গেছে, বছরখানেক ওমর সানী-মৌসুমী দম্পতির ছেলের একটা ইস্যুতে কাকতলীয়ভাবে ডাক পড়েছিল জায়েদ খানের। ইস্যুটি দ্রুত সমাধান করায় সাপে নেউলে সম্পর্ক বন্ধুত্বে গড়ায়। এরপর গত চার মাস আগে জাহিদ হোসেনের সোনার চর সিনেমার সেটে মিষ্টিমুখ করানোর ছবি ভাইরাল হয়। ওই সেটে তিন রাত চারদিন ছিল জায়েদ খান ও ওমর সানীর সঙ্গে মৌসুমী। তবে মৌসুমী বা জায়েদ খানের মধ্যে তেমন কোনো ঘনিষ্ঠতা দেখতে পাননি বলে দাবি ছবির নির্মাতার। তবে ঘনিষ্ঠ সূত্র আজকালের খবরের কাছে জানিয়েছেন, ‘সোনার চর’ সিনেমার শুটিং সেট থেকেই মূলত তাদের মাঝে রাত গভীরে দীর্ঘ সময়জুড়ে ঘনঘন কথাবার্তা হতো। কথাবার্তার মাঝে ব্যক্তিগত প্রসঙ্গও উঠে আসতো। যদিও সে দাবির পক্ষে শক্ত প্রমাণ আজকালের খবরের হাতে পৌঁছেনি।

গুঞ্জন বিস্তারের কারণ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক শিল্পী আজকালের খবরের কাছে বলেন, মৌসুমী খুবই জনপ্রিয় একজন অভিনেত্রী। ফলে তার ভক্ত ও অনুরাগীর সংখ্যা আঙুল দিয়ে গুণে হবে না। ভুলে গেলে চলবে না মান্নার সঙ্গে সম্পর্কের গুঞ্জনে একবার সংসার ভাঙার উপক্রম হয়েছিল মৌসুমীর। এছাড়াও নৃত্যপরিচালক মাসুম বাবুলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা ছাড়াও পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজারের সম্পর্ক ওপেন সিক্রেট। অন্যদিকে তারকা অভিনেত্রী পপির সঙ্গে প্রেমে বিয়ে ও মাহিয়া মাহির সঙ্গে জায়েদ খানের ডেটিং ছিল ইন্ডাস্ট্রির চর্চিত বিষয়।

খবর নিয়ে জানা গেছে, ওমর সানীর সঙ্গে এক ছাদের নিচে থাকলেও দুই বছর ধরে তাদের মধ্যে আন্তরিকতা নেই। ডুপ্লেক্স বাড়ির দোতলায় সানী তো তিন তলায় মৌসুমী। নানা কারণেই সানীর প্রতি অনীহা তৈরি হচ্ছিল। বিশেষ করে শিল্পী সমিতির নির্বাচনে মৌসুমীর ভরাডুবির পেছনে সানীর অপরিপক্বতাকে দায়ী করতে শোনা গেছে মৌসুমীর কাছেই। এছাড়া বিভিন্ন সময় বেফাঁস কথাবার্তায় মৌসুমী সমাজ ও সহকর্মীদের কাছে বিব্রত হয়েছেনÑ এসব ঘটনায় সানী থেকে মুখ ফিরিয়ে রেখেছেন হার্টথ্রব অভিনেত্রী মৌসুমী।

মৌসুমী চর্চা যখন তুঙ্গে তখন প্রসঙ্গটি ‘মানমর্যাদার’ বলেছেন সিনিয়র সাংবাদিক কামরুল হাসান দর্পণ। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ নিয়ে একটি পোস্ট দেন। লিখেনÑ ‘নাই’ অবস্থার মধ্যে চলচ্চিত্র বড় কিছু হারিয়েছে। সেটা হচ্ছে, সম্মান। কারণ দুই নায়কই চলচ্চিত্রের সঙ্গে জড়িত। তারা চলচ্চিত্রের প্রতিনিধিত্ব করেন। তাদের মানমর্যাদার সঙ্গে চলচ্চিত্রের মানমর্যাদাও জড়িয়ে আছে। তাদের কম-বেশি ভক্তশ্রেণি আছে। এই কাণ্ড, যদি ঘটে থাকে, তাহলে তাদের ভক্তশ্রেণি তাদের কী ভাবছে, এটা কি তারা একবার ভেবেছেন?

একইভাবে বিশিষ্ট বিনোদন সাংবাদিক দুলাল খান বলেন, রটনাকে ঘটনার পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। আমাদের উচিত ঘটনার সঙ্গে যাওয়া রটনা করে নয়। অথচ ইন্ডাস্ট্রির কথা না ভেবে আমরা সেটার পেছনেই হাঁটছি। আমরা ভুলে যাচ্ছি ইন্ডাস্ট্রির এই সম্মানের সঙ্গে আমাদের পেশারও সম্মান নষ্ট করছি। মানুষ আমাদের সম্পর্কে খুব বাজেভাবে বলছেÑ তাদের অসম্মান করা ঠিক হচ্ছে না। এই মানুষগুলো এই শিল্পীদের ভালোবাসে। আর সেই ভালোবাসা আমাদের লেখনির মাধ্যমেই উঠে আসে।

প্রসঙ্গত, ১০ জুন অভিনেতা ও প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজলের ছেলের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কয়েকদিন আগে মৌসুমীর সঙ্গে জায়েদ খান খারাপ আচরণ করেছেন এমন অভিযোগে জায়েদ খানকে থাপ্পড় দেওয়ার ঘটনায় চিত্রনায়ক ওমর সানীকে পিস্তল বের করে গুলি করার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ওঠে জায়েদ খানের বিরুদ্ধে। দাবি করা হয় ঘটনার সময় অভিনেত্রী অঞ্জনা ও রোজিনা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com, smnuas1977@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৯
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )