আজকের তারিখ- Tue-29-11-2022

৪০ বছর পর পাকিস্তান থেকে দেশে ফিরলেন ‘নিখোঁজ’ একলিমা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: দীর্ঘ ৪০ বছর পর পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে পরিবারের কাছে ফিরলেন হারিয়ে যাওয়া একলিমা বেগম (৬৫)। বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) দুপুর ৩টায় সাতক্ষীরার তালা উপজেলার গঙ্গারামপুর গ্রামে পৌঁছান তিনি।
পাকিস্তানে একলিমার দ্বিতীয় বিয়ে হয়। সেখান থেকে তার সঙ্গে এসেছেন দ্বিতীয় পক্ষের বড় ছেলে আশরাফ। একলিমা বেগমকে কাছে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়েছেন তার স্বজনরা।
এলাকাবাসী তাকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। ফিতা কেটে গ্রামের বাড়িতে প্রবেশ করেন তিনি ও তার ছেলে।
একলিমা খাতুনের ছোটভাই ইব্রাহীম শেখ জানান, একলিমা বেগম সাতক্ষীরার তালা উপজেলার গঙ্গারামপুর গ্রামের মৃত ইসমাইল শেখের মেয়ে ও ৩ সন্তানের জননী। দেশে থাকাকালে স্বামীর মৃত্যুর পর মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন তিনি। ১৯৮২ সালে হারিয়ে যান একলিমা বেগম। পরিবারের সদস্যরা খোঁজাখুঁজি করেও সন্ধান পায়নি তার। অবশেষে চার মাস আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তার সন্ধান মেলে। দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে পাকিস্তানের শিয়ালকোটের দিলওয়ালীতে ছিলেন তিনি। তবে কিভাবে সেখানে পৌঁছালেন কিছুই মনে নেই তার। শুধু মনে আছে, তার বাবা-মা, ভাই ও তালার গঙ্গারামপুর গ্রামের নামটি।
একলিমার প্রথমপক্ষের ছেলে হেকমত আলী জানান, দীর্ঘ ৪০ বছর পর মাকে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়েছি। মাকে জীবনে আর কখনো ফিরে পাব এ আশা ছিল না। তিনি মাকে ফিরে পাওয়ার আনন্দে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করেন।
একলিমা বেগমের বড়ভাই মৃত মকবুল শেখের ছেলে জাকারিয়া শেখ বলেন, কিছুদিন আগে ফেসবুকের মাধ্যমে ফুফু একলিমার খোঁজ পাই। তারপর থেকে তার সঙ্গে বাড়ির সবার নিয়মিত কথা হয়। তিনি আমাদের এখানে আসার প্রবল আগ্রহ প্রকাশ করেন। এজন্য আমরা পাকিস্তানে তাদের কাছে ইনভাইটেশন লেটার পাঠাই। পরে পাকিস্তানে থাকা তার ছেলেদের সহযোগিতায় ভিসার কাজ সম্পন্ন হয়। বৃহস্পতিবার পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশ ফ্লাইটযোগে তিনি ঢাকায় আসেন। দুপুর ৩টার দিকে গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছান। দীর্ঘ ৪০ বছর পরে তাকে কাছে পেয়ে স্বজন ও এলাকাবাসী আনন্দে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়ে।
জাকারিয়া শেখ আরও বলেন, আমরা ফুফুকে ফিরে পাওয়ার আশা ছেড়ে দিয়েছিলাম। ৪ মাসের ভিসা নিয়ে ফুফু বাংলাদেশে এসেছেন। তাকে কাছে পেয়ে আমরা সত্যিই আনন্দিত।
তালা উপজেলার খলিলনগর ইউপি চেয়ারম্যান প্রণব ঘোষ বাবলু জানান, একলিমা বেগমের ফেরার খবর পেয়ে আমি তার বাড়িতে গিয়ে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে স্বাগত জানিয়েছি। একলিমা ১৯৮২ সালে তার স্বামীর মৃত্যুর পরে হারিয়ে যান। কিছুদিন পূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পাকিস্তানে তার সন্ধান পাই। একলিমার পরিবার পরবর্তীতে ভিসার কাজ সম্পন্ন করে আজ তার নিজ গ্রাম গঙ্গারামপুরে আসেন।
দীর্ঘদিন পরে তার এলাকায় ফেরা নিয়ে পরিবার ও এলাকায় আনন্দঘন পরিবেশ তৈরি হয়েছে বলে তিনি জানান।
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com, smnuas1977@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৯
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )
x
পাঠকপ্রিয় সাপ্তাহিক যুগের খবর ও অন-লাইন নিউজ পোর্টাল www.jugerkhabor.com এর দশম বর্ষপূর্তি ও ১১তম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে সকল পাঠক, গ্রাহক,প্রতিনিধি, বিজ্ঞাপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ীদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা। ----- এস, এম নুরুল আমিন সরকার, সম্পাদক ও প্রকাশক।।