আজকের তারিখ- Sat-31-10-2020
 **   চিলমারীতে যোগদানের ১বছর পূর্তিতে ইউএনওকে ফুলেল শুভেচ্ছা **   করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৫৯০০ ছাড়াল **   জাতি বিনির্মাণে মানুষের মনন তৈরিতে গণমাধ্যম অনন্য: তথ্যমন্ত্রী **   চিলমারীতে ফাইলেরিয়া রোগের প্রচার প্রচারনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত **   ‘বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেয় লোক দেখাতে’ **   ইরফান আদালতে, অপেক্ষা রিমান্ড শুনানির **   চিলমারী উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবি লীগের কমিটি অনুমোদন **   রাষ্ট্রপক্ষের প্রত্যাশা সাজা, আসামিপক্ষ ‌‘বেনিফিট অব ডাউট’ **   অপরাধী যেই হোক আইনের আওতায় আনা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী **   চিলমারীতে বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মজিদের মরদেহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

আওয়ামী লীগের আট বিশেষ টিম

যুগের খবর ডেস্ক: সাংগঠনিক কাজে গতি আনতে দেশের আটটি সাংগঠনিক বিভাগের জন্য কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্যদের সমন্বয়ে আটটি টিম গঠন করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এ ছাড়াও বিভিন্ন কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার সময় যাতে কোনো অপকর্মকারী ও অপরাধীরা পদ না পায় সেই বিষয়ে কড়া নির্দেশনা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেইসঙ্গে কমিটিতে ত্যাগী ও প্রবীণদের মূল্যায়ন করার কথা বলেছেন তিনি। আর আগামীতে যেসব স্থানীয় সরকার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনের জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি। করোনার কারণে যে কোন সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার সময় নেতাকর্মীদের কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে বলেন তিনি।
শনিবার দলটির কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। পরে বিকালে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।
ব্রিফিংকালে কাদের বলেন, ‘করোনায় ডিজিটাল মাধ্যমে দলের কার্যক্রম চলেছে। তবে সাংগঠনিক কার্যক্রমে কিছুটা গতি কমে এসেছে। কার্যক্রমে গতি আনতে আটটি টিম গঠন করা হয়েছে।’
তিনি বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্তগুলো তুলে ধরে বলেন, ‘দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে দুর্দিনের ত্যাগী, পরীক্ষিত ও নিবেদিত নেতাকর্মীরা যাতে বাদ না পড়ে সে দিকে সবাইকে লক্ষ্য রাখতে নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে কোনও অবস্থাতেই দলের অভ্যন্তরে বিতর্কিতদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেওয়া চলবে না।’
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কমিটিগুলোতে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক হলেই নিজেদের লোক দিয়ে মাই ম্যান (নিজস্ব বলয় সৃষ্টির জন্য) কমিটি গঠন করা যাবে না। কাউন্সিলে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে যারা প্রার্থী হয়েছিলেন তাদের মধ্যে যোগ্যতাসম্পন্ন ও পরীক্ষিত নেতাদের কমিটিতে রাখতে হবে। তৃণমূলের সব কমিটি সম্মেলনের মধ্য দিয়ে গঠন করতে হবে। সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি গঠন হলে মাঠের লোকরাই নেতা হবেন। আর সম্মেলন ছাড়া হলে লবিংয়ে বা তদবিরের লোক নেতা হয়।’
বৈঠকের একটি সূত্র জানিয়েছে, কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে সাংগঠনিক আলোচনাই বেশি হয়েছে। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগসহ সারা দেশের আওয়ামী লীগের কোথাও যেন বিতর্কিত কেউ ডুকতে না পারে দলের সভাপতি শেখ হাসিনা সেই নির্দেশনা দিয়েছেন। আর ঢাকা মহানগর কমিটি জমা পড়লেও সেটা যাচাই বাছাইয়ের জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। জেলা, মহানগর কমিটি যাচাই-বাছাইয়ের জন্য একটি করে বিভাগীয় কমিটি করে দেওয়া হয়েছে। আর ঢাকা মহানগরের কমিটি দেখবে ঢাকা বিভাগীয় কমিটি।
জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ বলেন, ‘আমাদের যে সকল জেলা কমিটি পূর্ণাঙ্গ হয়নি, তারা পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা জমা দিয়েছে। ইতোমধ্যে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণের কমিটিও জমা দিয়েছে। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা দিয়েছেন যেন কোনো বিতর্কিত লোক কমিটিতে না আসতে পারে। কোনো অপরাধী, কোনো ধরনের অপকর্মের সঙ্গে যুক্ত কেউ যেন কোনো কমিটিতে প্রবেশ করতে না পারে। আর দীর্ঘ দিন যাবত আওয়ামী লীগের সঙ্গে যুক্ত, ত্যাগী, দুর্দিনে দলের জন্য কাজ করাদের যাতে কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়, সেই নির্দেশনা দিয়েছেন নেত্রী।’
বৈঠক সূত্র জানায়, সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রায় ৭ মাস পর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের এ সভা আহ্বান করা হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় আওয়ামী লীগের ৮১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী সংসদের সবাইকে ডাকা হয়নি। স্বাস্থ্যবিধি রক্ষার সুবিধার্থে ৩৩ জনকে সভায় উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। এতে বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদকরা স্ব স্ব বিভাগের সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন। এর ভিত্তিতে সংগঠনের নানা দিক নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে উপস্থিত সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যদের মধ্যে কথা বলেন শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কাজী জাফরউল্লাহ, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ড. রোকেয়া সুলতানা, কেন্দ্রীয় সদস্য গোলাম কিবরিয়া চিনু, মেরিনা জাহান কবিতা প্রমুখ। চলতি বছরের মার্চের ৯ তারিখ সর্বশেষ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী বৈঠক হয়।
আট বিভাগে বিশেষ টিমে আছেন যারা-
ঢাকা বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ও সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজমকে সমন্বয়ক করা হয়েছে। টিমের সদস্যরা হলেন- সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান, অ্যাডভোকেট আবদুল মান্নান খান, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, মো. দেলোয়ার হোসেন, অ্যাড. মৃণাল কান্তি দাস, মেহের আফরোজ চুমকি, মো. সিদ্দিকুর রহমান, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট এবিএম রিয়াজুল কবীর কাওছার, আনোয়ার হোসেন, ইকবাল হোসেন অপু, অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম, সাহাবুদ্দিন ফরাজী এবং মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।
ময়মনসিংহ বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ও সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলকে সমন্বয়ক করে টিম গঠন করা হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, অসীম কুমার উকিল, মারুফা আক্তার পপি, উপাধ্যক্ষ রেমন্ড আরেং।
রাজশাহী বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেনকে সমন্বয়ক করা হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, ডা. রোকেয়া সুলতানা, নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, প্রফেসর মেরিনা জাহান এবং বেগম আখতার জাহান।
রংপুর বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনকে সমন্বয়ক করা হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, শাজাহান খান, কোষাধ্যক্ষ এইচ এন আশিকুর রহমান, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, অ্যাডভোকেট সফুরা বেগম রুমি।
খুলনা বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হককে সমন্বয়ক করা হয়েছে। টিমের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ, পীযূষ কান্তি ভট্টাচার্য্য, হাবিবুর রহমান সিরাজ, অ্যাডভোকেট মো. আমিরুল ইসলাম মিলন, পারভীন জামান কল্পনা, অ্যাডভোকেট গ্লোরিয়া সরকার ঝর্ণা।
বরিশাল বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেনকে সমন্বয়ক করা হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন, ডাক্তার শাম্মী আহমেদ, গোলাম কবীর রাব্বানী চিনু এবং আনিসুর রহমান।
সিলেট বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবউল আলম হানিফ ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিককে সমন্বয়ক করা হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, নুরুল ইসলাম নাহিদ, ডা. মুশফিক হোসেন চৌধুরী ও উপদফতর সম্পাদক সায়েম খান।
চট্টগ্রাম বিভাগ: যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবউল আলম হানিফ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেনকে সমন্বয়ক করা হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, ওয়াসিকা আয়েশা খান, ফরিদুন্নাহার লাইলী, ড. সেলিম মাহমুদ, সুজিত রায় নন্দী, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ইঞ্জিনিয়ার মো. আব্দুস সবুর, হারুনুর রশিদ, আমিনুল ইসলাম আমিন ও দীপংকর তালুকদার।
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com, smnuas1977@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৯
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )