আজকের তারিখ- Fri-04-12-2020

হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন আজ

যুগের খবর ডেস্ক: নন্দিত কথাসাহিত্যিক ও নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের ৭২তম জন্মবার্ষিকী আজ শুক্রবার।

১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। দিনটিকে ঘিরে প্রতিবারের মতো এবারও অনুষ্ঠিত হচ্ছে নানা আয়োজন। হুমায়ূনের স্মৃতিবিজড়িত নুহাশ পল্লীতে আজ হুমায়ূনভক্তরা প্রিয় লেখকের কবর জিয়ারত করবেন। পাশাপাশি রয়েছে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল। নুহাশ পল্লীর ম্যানেজার সাইফুল ইসলাম বুলবুল গতকাল শুক্রবার দেশ রূপান্তরকে বলেন, প্রতিবারের মতোই নুহাশ পল্লীর প্রবেশদ্বার সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। সকাল ১০টায় কেক কাটা হবে এবং কবর জিয়ারত করা হবে। হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওনসহ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন। তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নুহাশ পল্লীতে প্রবেশ করতে হবে।

এ ছাড়া একাধিক বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার হবে। দুরন্ত টিভিতে শুক্রবার বেলা ৩টায় প্রচার হবে বিশেষ টেলিছবি ‘বোতল ভূত’। হুমায়ূন আহমেদের লেখা ছোটগল্প অবলম্বনে টেলিছবিটি পরিচালনা করেছেন মেহের আফরোজ শাওন। অন্যদিকে হুমায়ূন আহমেদকে নিয়ে বই প্রকাশ করেছেন হাসান শাওন। বইটির নাম ‘হুমায়ূনকে নিয়ে’। শুক্রবার বইটি প্রকাশ করছে অভয়া লিমিটেড। প্রচ্ছদ এঁকেছেন হুমায়ূনের ছোট ভাই ‘উন্মাদ’ পত্রিকার সম্পাদক আহসান হাবীব।

১৯৭২ সালে প্রকাশিত হুমায়ূন আহমেদের প্রথম উপন্যাস ‘নন্দিত নরকে’ পাঠকমহলে প্রশংসিত হয়। তার সৃষ্টি হিমু, মিসির আলি, বাকের ভাই চরিত্রগুলো পেয়েছে ‘অমরত্ব’। ১৯৮০-৯০-এর দশকে বাংলাদেশ টেলিভিশনের জন্য ধারাবাহিক এবং স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র রচনা করেন তিনি। ১৯৮৩ সালে তার প্রথম টিভি কাহিনীচিত্র ‘প্রথম প্রহর’ বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচার শুরু হলে বেশ জনপ্রিয়তা পায়। তার টেলিভিশন ধারাবাহিকগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘এইসব দিনরাত্রি’, ‘বহুব্রীহি’, ‘কোথাও কেউ নেই’, ‘নক্ষত্রের রাত’, ‘অয়োময়’, ‘আজ রবিবার’, ‘নিমফুল’, ‘তারা তিনজন’, ‘মন্ত্রী মহোদয়ের আগমন শুভেচ্ছা স্বাগতম’, ‘সবুজ সাথী’, ‘উড়ে যায় বকপক্ষী’, ‘এই মেঘ এই রৌদ্র’ প্রভৃতি। এ ছাড়া ‘খেলা’, ‘অচিন বৃক্ষ’, ‘খাদক’, ‘একি কাণ্ড’, ‘একদিন হঠাৎ’, ‘অন্যভুবন’-এর মতো নাটকগুলোর সংলাপ এখনো অনেকের মুখেই শোনা যায়। হুমায়ূন আহমেদের চিত্রনাট্য ও পরিচালনার ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে– ‘আগুনের পরশমণি’, ‘শ্রাবণ মেঘের দিন’, ‘দুই দুয়ারী’, ‘চন্দ্রকথা’, ‘শ্যামল ছায়া’, ‘নয় নম্বর বিপদ সংকেত’, ‘ঘেটুপুত্র কমলা’। গীতিকার হিসেবেও তিনি নন্দিত হয়েছেন। তার লেখা গান অসংখ্য মানুষের হৃদয় ছুঁয়েছে।

বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্য ১৯৯৪ সালে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পদক ‘একুশে পদক’ লাভ করেন তিনি। এ ছাড়া বাংলা একাডেমি পুরস্কার (১৯৮১), লেখক শিবির পুরস্কার (১৯৭৩), জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অসংখ্য সম্মাননা পেয়েছেন তিনি।

২০১২ সালের ১৯ জুলাই মৃত্যুবরণ করেন নন্দিত এই কথাসাহিত্যিক।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com, smnuas1977@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৯
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )