আজকের তারিখ- Sat-13-04-2024

নাগেশ্বরীতে সুপারের উদাসীনতায় ৩ শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চৎ বিচার চান ভুক্তভোগীরা

নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে অষ্টম শ্রেণিতে রেজিষ্ট্রেশন না হওয়ায় ৩ শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চৎ হয়ে পড়েছে। রেজিষ্ট্রেন থেকে বঞ্চিত হওয়ায় দাখিল পরীক্ষাতেও অংশ নিতে পারবেন না তারা। স্থানীয় ও অভিভাবকদের অভিযোগ সুপারিনটেনডেন্ট এর অবহেলা, উদাসীনতা ও নানা অনিয়মের কারণের এমনটা হয়েছে। এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন অভিভাবকগণ। উপজেলার রামখানা ইউনিয়নের পশ্চিম রামখানা একরামিয়া দাখিল মাদরাসা সুপারের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগে জানা যায় পাশর্^বর্তী ফুলবাড়ি উপজেলার অনন্তপুর এলাকার এরশাদ আলীর ছেলে আবু রায়হান ২০১৭ সালে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে পিএসসি পরীক্ষায় উত্তির্ণ হয়। পরে ওই মাদরাসা থেকেই ২০২০ সালে অষ্টম শ্রেণির রেজিষ্ট্রেশন ও ফরম ফিলাপ করেন। কিন্ত করোনার কারণে জেএসসি’র পরীক্ষা না হয়ে অটোপাস করেন। এরপর নবম ও দশম শ্রেণিতে অধ্যয়ন করে এবং নবম শ্রেণির রেজিষ্ট্রেশন ফি ও এসএসসি (দাখিল) এর ফরম ফিলাপসহ যাবতীয় ফি গ্রহণ করেন ওই প্রতিষ্ঠানের সুপারিনটেনডেন্ট মো. উমর আলী। পরে টেস্ট পরীক্ষার রুটিন মাফিক ১২ অক্টোবর কুরআন বিষয়ে প্রথম পরীক্ষায় অংশ নেন রায়হান। কিন্তু পরদিন হাদিস বিষয়ে দ্বিতীয় পরীক্ষায় অংশ নিলে সেদিন তাকে প্রশ্নপত্র ও উত্তরপত্রের খাতা না দিয়ে সুপার তাকে রেজিষ্ট্রশন হয়নি জানিয়ে পরীক্ষা দিতে নিষেধ করেন। এ কথা শুন আবু রায়হান দিশা হারা হয়ে বাড়ি ফিরে তার বাবাকে বিষয়টি জানায়। তার বাবা এরশাদুল হক জানার পর ওই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও কমিটির লোকজন নিয়ে মাদরাসায় গিয়ে সুপারকে বললে তিনি জানান যে রায়হানের রেজিষ্ট্রেশন হয়নি। তাকে অষ্টম শ্রেণিতে পুনরায় রেজিষ্ট্রেশন করে জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। এছাড়াও রামখানা ইউনিয়নের পশ্চিম রামখানা দিঘিরপাড় এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে হোসাইন মিয়ারও অষ্টম শ্রেণিতে রেজিষ্ট্রেশন হয়নি। হোসাইন জানায় ছোটবেলাতেই তার মা মারা যায়। বাবা রফিকুল তার খোঁজ খবর রাখেন না। কোথায় থাকেন সেটাও জানেন না কেউ। ছোটবেলা থেকেই তার পরাশোনার খরচসহ ভরনপোষন চালান বৃদ্ধ দাদা মজিবর রহমান (৭৬)। তিনি সারাদিন বর্শি দিয়ে মাছ ধরে যা পান তা বাজারে বিক্রি করে কোনোমতে সংসার চালান। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী হোসাইন আরও জানায়, সে জানতো ২০২১ সালের জেএসসিতে সে অটোপাসের মাধ্যমে উত্তির্ণ হয়েছে। সে অনুযাযী ওই প্রতিষ্ঠান থেকে নবম শ্রেণির বইও পেয়েছে সে। এমনকী নবম শ্রেণি থেকে অর্ধবার্ষিক পরীক্ষাতেও অংশ নিয়েছে হোসাইন। পরীক্ষার পরে পরে জানতে পারেন তাকে আবারও অষ্টম শ্রেণিতে পড়তে হবে। নতুন করে রেজিষ্ট্রেশন করে তারপর জেএসসি পরীক্ষা দিতে পারবে। হোসাইনের দাদা মজিবর রহমান জানায়, অভাবের সংসারে খেয়ে না খেয়ে নাতীর পড়াশোনার খরচ চালালেও রেজিষ্ট্রেশন না হওয়ায় নাতির ভবিষ্যৎ অনিশ্চিৎ হয়ে পড়েছে। এসব কথা বলতেই কেঁদেই ফেলেন বৃদ্ধ দাদা। কান্না জড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, এত কষ্টের টাকা তার ভেস্তে গেলো। সুপারের অনিয়ম ও গাফিলতির কারণে তার নাতি ভবিষ্যৎ এখন অন্ধকার। অপরদিকে মাদরাসা সংলগ্ন ভুট্টু মিয়ার মেয়ে খুশি খাতুনেরও হয়নি জেএসসির রেজিষ্ট্রেশন। তার বাবা জেএসসির সনদপত্র নিতে গিয়ে জানতে পারেন তার রেজিষ্ট্রেশনই হয়নি। এখন তিনি তার মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন।
স্থানীয়রা অভিযোগকরে জানান, ওই প্রতিষ্ঠানের প্রধান একজন দুর্নীতি পরায়ন ব্যাক্তি। তার উদাসীনতায় আজ ৩ শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিৎ হয়ে পড়েছে। এর সঠিক তদন্ত করে সুপারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়ার দাবিও জানান তারা। তবে এ বিষয়ে কথা বলতে ওই প্রতিষ্ঠানে গেলে সুপারকে পাওয়া যায়নি। এমনকী মোবাইলে কথা বলতে যোগাযোগ করা হলেও পাওয়া যায়নি। আর সুপারের অনুপস্থিতিতে কথা বলতে রাজি হননি সহকারী শিক্ষকরা।
এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কামরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-২০২৪
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )