আজকের তারিখ- Tue-25-06-2024

মার্কিন-ভারত বৈঠকে বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে স্পষ্ট আলোচনা হয়েছে জানালেন ভারতের পররাষ্ট্রসচিব

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের দুই মন্ত্রী ও শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকর পর ভারতের পররাষ্ট্রসচিব বিনয় কাত্রা মিডিয়া ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন, ‘ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বাংলাদেশের কিছু বিষয় নিয়ে স্পষ্ট আলোচনা হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে দক্ষিণ এশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের উন্নয়ন নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা হয়েছে। এ সময় উভয় পক্ষই বাংলাদেশের বিষয়ে স্পষ্টভাবে তাদের নিজ নিজ দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশ করেছে।’

আজ শুক্রবার নয়াদিল্লিতে ভারত-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে পঞ্চম ‘টু প্লাস টু’ পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী পর্যায়ের সংলাপ অনুষ্ঠিত হল। গুরুত্বপূর্ণ এই বৈঠকে ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বৈশ্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্ব, প্রতিরক্ষা সহযোগিতা, উদীয়মান প্রযুক্তি, উভয় দেশের জনগণের মধ্যে সম্পর্ক বৃদ্ধি, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে আঞ্চলিক উদ্বেগ এবং সেইসঙ্গে চলতি ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা ও মতবিনিময় হয়েছে। বৈঠকে স্পষ্ট আলোচনা হয়েছে বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় নির্বাচন ও সাম্প্রতিক রাজনৈতিক অস্থিরতা নিয়েও।
এতে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন, প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুব্রহ্মণ্যম জয়শঙ্কর এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংসহ দুই দেশের পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা। গত ২০১৮ সাল থেকে ভারত ও যু্ক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও এই দুই মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তাদের মধ্যে এই ‘টু প্লাস টু’ বৈঠক হয়ে আসছে।
বিনয় কাত্রা বলেন, ‘বাংলাদেশের আমাদের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও অংশীদার। সে হিসেবে আমরা বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে সম্মান করি এবং দেশটির জনগণ নিজেদের জন্য যে স্থিতিশীল, শান্তিপূর্ণ ও প্রগতিশীল অবস্থার আশা করে, আমরা তাদের সে লক্ষ্যকে সমর্থন দিয়ে যাব। আমরা বাংলাদেশ সম্পর্কে খুব স্পষ্টভাবে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি বিনিময় করেছি। মার্কিন মন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনার সময় আমরা বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের পরিস্থিতি কীভাবে মূল্যায়ন করি তা স্পষ্টভাবে জানিয়েছি, এই আলোচনায় বাংলাদেশের বিষয়ও অন্তর্ভুক্ত ছিল।’
যুক্তরাষ্ট্রের কথা উল্লেখ করে ভারতীয় পররাষ্ট্রসচিব বলেন, ‘তৃতীয় কোনো দেশের নীতি নিয়ে আমরা মন্তব্য করতে পারি না। আমি মনে করি যখন বাংলাদেশের উন্নয়ন বা নির্বাচনের কথা যখন আসে, তখন এটা তাদের নিজস্ব ব্যাপার। বাংলাদেশের জনগণই তাদের ভবিষ্যৎ ঠিক করে।’
বৈঠক শেষে ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহযোগিতার কথা তুলে ধরেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর। তিনি বলেন, ‘জটিল প্রযুক্তি, বেসামরিক মহাকাশ এবং জটিল খনিজগুলোর মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা যখন বিশ্বব্যাপী এজেন্ডা নির্মাণ করছি। সেখানে একটি দূরদর্শী অংশীদারিত্ব গড়ে তোলাই আমাদের লক্ষ্য।’
ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘টু প্লাস টু’ বৈঠকে আমরা ক্রস-কাটিং কৌশলগত, প্রতিরক্ষা এবং নিরাপত্তা সম্পর্ক, প্রযুক্তি এবং সাপ্লাই চেইন সহযোগিতা এবং জনগণের মধ্যে বিনিময়ের একটি ব্যাপক ধারণা নেব। আমাদের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য আজ ২০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি। ২ লাখ ৭০ হাজার ভারতীয় ছাত্র যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করে, এবং আমাদের ৪৪ লাখ প্রবাসী রয়েছে। আমাদের আজকের আলোচনার মূল ফোকাস ভারত প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে।’
ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ প্রসঙ্গে জয়শঙ্কর বলেন, ‘মধ্যপ্রাচ্যের পরিস্থিতি একটি বড় উদ্বেগের কারণ হয়ে দঁড়িয়েছে। ভারত সর্বদাই ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তিতে বিশ্বাসী। পাশাপাশি নিরাপদ ও স্বীকৃত সীমানার মধ্যে বসবাসকারী ফিলিস্তিনের একটি সার্বভৌম, স্বাধীন এবং কার্যকর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য সরাসরি আলোচনার কথাও বলে আসছে।’
এদিকে, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন জানান, ‘টু প্লাস টু’ সংলাপ ভারত-মার্কিন সম্পর্ককে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে একটি সুযোগ হবে। তিনি বলেন, উভয় দেশের একটি শক্তিশালী অংশীদারিত্ব রয়েছে এবং ভবিষ্যতের জন্য প্রভাবসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করছে। আমরা আন্তর্জাতিক শান্তি, নিরাপত্তায় অংশীদারিত্বকে জোরদার করছি এবং বিশেষভাবে নিয়ম-ভিত্তিক শৃঙ্খলার প্রচারণায় এবং সার্বভৌমত্ব, আঞ্চলিক অখণ্ডতা এবং স্বাধীনতার নীতিগুলো সমুন্নত রাখতে কাজ করছি৷ আমাদের প্রতিরক্ষা সহযোগিতা সেই কাজেরই একটি মূল স্তম্ভ।
শীর্ষ এই মার্কিন কূটনীতিক আরও বলেন, আমরা জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে কোয়াডের মাধ্যমে আমাদের অংশীদারিত্বকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি একটি স্বাধীন ও উন্মুক্ত, সমৃদ্ধ, নিরাপদ এবং স্থিতিস্থাপক ইন্দোপ্যাসিফিক অঞ্চলে উন্নীত করছি।
এর আগে এদিন সকালে নয়াদিল্লিতে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠক করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন। বৈঠকে ইন্দো-প্যাসিফিক এবং আঞ্চলিক বিষয় নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি উঠে আসে পশ্চিম এশিয়ার চলমান অস্থিরতার বিষ্টায়টিও।
বৈঠক শেষে জয়শঙ্কর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম এক্স হ্যান্ডেলে (ট্যুইটার) লেখেন, আজ সকালে সেক্রেটারি অফ স্টেট ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে দেখা করতে পেরে আনন্দিত। আমাদের কৌশলগত অংশীদারিত্ব আরও বৃদ্ধির লক্ষ্যে একটি খোলামেলা এবং সদর্থক আলোচনা হয়েছে। পশ্চিম এশিয়া, ইন্দো-প্যাসিফিক এবং অন্যান্য আঞ্চলিক সমস্যা নিয়েও কথা বলেছি।
‘টু প্লাস টু’ বৈঠকে যোগ দিতেই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নয়াদিল্লীতে এসে পৌঁছান দুই মার্কিন শীর্ষ মন্ত্রী। এই বৈঠকের ফাঁকেই ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন।
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-২০২৪
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )