আজকের তারিখ- Wed-29-05-2024

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে মেয়েরা এগিয়ে

যুগের খবর ডেস্ক: দেশের নারীরা ক্রমশ এগিয়ে যাওয়ার গল্প বুনছেন। একসময়ের ঘরে বসে থাকা নারী এখন আর ঘরে বসে নেই। নারী এখন বিমানের ককপিটে হাত রাখছে। এমনকি নারী এখন মহাকাশে পদচিহ্ন এঁকে দিচ্ছে। সবখানে সক্ষমতার প্রমাণ দিচ্ছেন নারী। শক্তি, সামর্থ্য ও মেধায় অনন্যা নারী।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিতেও সেই প্রমাণ মিলছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির তথ্যে দেখা যায়, ক্রমান্বয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিতে বাড়ছে নারী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ। সর্বশেষ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে  ভর্তি হওয়া ছয় হাজার ৬০ শিক্ষার্থীর মধ্যে নারী শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছেন তিন হাজার ১০৫ জন। অর্থাৎ ভর্তি হওয়া মোট শিক্ষার্থীর ৫১ দশমিক ২৩ শতাংশই নারী। অথচ এক যুগ আগে ২০১০-১১ সেশনে নারীদের ভর্তির এই হার ছিল ৩৬ দশমিক ৯১ শতাংশ।
সমাজ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নারীদের শিক্ষার ক্ষেত্রে সম্পৃক্ত হওয়ার বিষয়টি রাষ্ট্র দীর্ঘ সময় ধরে পরিবার থেকে শুরু করে সমাজের সর্বস্তরে উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে নারীশিক্ষার ক্ষেত্রে ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে পেরেছে। এ ছাড়া অভিভাবকদের মধ্যেও একটা ইতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়েছে নারীদের উচ্চশিক্ষার বিষয়ে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত বছরগুলোর ভর্তির তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১০-১১ সেশনে ভর্তি হওয়া পাঁচ হাজার ৫৪৮ শিক্ষার্থীর মধ্যে  দুই হাজার ৪৮ জন নারী; ২০১১-১২ সেশনে ছয় হাজার ১২ জনের মধ্যে দুই হাজার ৯৭ জন নারী; ২০১২-১৩ সেশনে পাঁচ হাজার ৮০২ জনের মধ্যে দুই হাজার ১৯৮ জন নারী; ২০১৩-১৪ সেশনে ছয় হাজার ২৩০ জনের মধ্যে দুই হাজার ১৬৯ জন নারী; ২০১৪-১৫ সেশনে ছয় হাজার ৪৩৬ জনের মধ্যে দুই হাজার ২৮১ জন নারী; ২০১৫-১৬ সেশনে সাত হাজার ১৩৭ জনের মধ্যে দুই হাজার ৯৩৪ জন নারী; ২০১৬-১৭ সেশনে সাত হাজার ২৪৭ জনের মধ্যে দুই হাজার ৭২১ জন নারী; ২০১৭-১৮ সেশনে সাত হাজার ৩৬৫ জনের মধ্যে দুই হাজার ৬৭৩ জন নারী; ২০১৮-১৯ সেশনে সাত হাজার ৪১৩ জনের মধ্যে দুই হাজার ৮২৫ জন নারী; ২০১৯-২০ সেশনে সাত হাজার ৪৩১ জনের মধ্যে তিন হাজার ৬০৫ জন নারী; ২০২০-২১ সেশনে সাত হাজার ৫৩৫ জনের মধ্যে তিন হাজার ৪১৪ জন নারী; ২০২১-২২ সেশনে ছয় হাজার ২০৪ জনের মধ্যে দুই হাজার ৯২১ জন নারী; ২০২২-২৩ সেশনে ছয় হাজার ৬০ শিক্ষার্থীর মধ্যে তিন হাজার ১০৫ জন নারী শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছেন।
সমাজ ও অপরাধ বিশেষজ্ঞ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ড. তৌহিদুল হক বলেন, সমাজকাঠামোর কারণে দীর্ঘ সময় ধরে নারীদের উন্নয়ন, শিক্ষায় অংশগ্রহণ ও কর্মক্ষেত্রে সম্পৃক্ততার প্রেক্ষাপটে নারীরা বঞ্চনার শিকার হয়ে আসছেন। নারীদের শিক্ষার ক্ষেত্রে সম্পৃক্ত হওয়ার বিষয়টি রাষ্ট্র দীর্ঘ সময় ধরে পরিবার থেকে শুরু করে সমাজের সর্বস্তরে উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে নারীশিক্ষার ক্ষেত্রে ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে পেরেছে। এ ছাড়া অভিভাবকদের মধ্যেও একটা ইতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত নারীদের অবৈতনিক শিক্ষার সিদ্ধান্ত নারীদের উচ্চ শিক্ষায় অংশগ্রহণে ভূমিকা রেখেছে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উইমেন অ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. তানিয়া হক বলেন, বর্তমানে প্রতিটি ক্ষেত্রেই মেয়েদের অগ্রগতি লক্ষণীয়। এটি নারীদের জন্য সরকারি নানা উদ্যোগের ফল। সরকার কর্মক্ষেত্র থেকে শুরু করে নারীদের জন্য নানা স্কোপ তৈরি করেছে।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম বলেন, ১৯৯৭ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর জাতীয় নারী নীতি প্রণয়ন করা হয়। যেখানে নারীদের অগ্রায়ন, সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করার বিষয়গুলো স্পষ্টভাবে উল্লেখ ছিল। এই নীতির প্রতিফলনই আমরা এখন দেখছি।
বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি ফাওজিয়া মোসলেম বলেন, নারীরা উচ্চশিক্ষায় আসছে তা ঠিক। কিন্তু উচ্চশিক্ষা শেষে পেশাগত জীবনে নারীরা  শিক্ষাগত যোগ্যতা কতটা কাজে লাগাতে পারছে, সেদিকে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষ করে নারী শিক্ষার্থীদের আবাসন সমস্যার সমাধান জরুরি।
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-২০২৪
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )