আজকের তারিখ- Tue-18-06-2024

উলিপুরে রাতের আঁধারে কর্মহীনদের ঘরে খাদ্য নিয়ে চেয়ারম্যান

নুরবক্ত আলী, উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: দেশে চলমান প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে দিনের বেলায় করোনাভাইরাস রোধে সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে ইউনিয়ন পরিষদে কর্মহীন রিকশা, ভ্যান, অটোবাইক চালকসহ বিভিন্ন দুঃস্থ ৫শ পরিবারের মাঝে চাউল বিতরণ করা হয় এবং গত কয়েকদিন ধরে অসহায় পরিবারে ঘরে রাতের আঁধারে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন উলিপুরের ধামশ্রেনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাখিবুল হাসান সরদার।
প্রতি রাত ৯টার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত তিনি এলাকায় ঘুরে ঘুরে কর্মহীন অসহায় পরিবারের ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন চাউল, মরিচ পিয়াজ আলু, বেগুনসহ প্রয়োজনীয় দ্রব্য।
চেয়ারম্যান রাখিবুল সরদার সোমবার সকালে প্রতিনিধিকে জানান, অনেক পরিবার আছে তারা মান সম্মানের ভয়ে দিনের বেলায় খাবার গ্রহন করতে চায় না তাই তিনি রাতের বেলায় অসহায় পরিবারগুলো খুঁজে খুঁজে তাদের ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন এ খাবার।
এছাড়া, ভ্যানগাড়ীতে করে প্রয়োজনীয় আলু,ডাল, বেগুন,সবজি, পিয়াজ, রসুন,মসলা, সাবান, তৈল, কাঁচা মরিচ, চিনি,লবণসহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ইউনিয়নে মধ্যে বাজার মুল্যে বিক্রয়ের জন্য ব্যবস্থা করে দেন।। প্রতিদিন নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য নিয়ে বিক্রির জন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ঘুরে বেড়াচ্ছে কয়েকটি ভ্যানগাড়ী। সেখান থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যগুলো বাজার মুল্যে এলাকার লোকজন ক্রয় করতে পারবেন যাতে করে কাউকে বাড়ীর বাহিরে যেতে না হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-২০২৪
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )