আজকের তারিখ- Wed-29-05-2024

শিক্ষার্থী ঝরে পড়া থামছে না

সম্প্রতি পত্র-পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, দেশে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার হার গত পাঁচ বছরে একই বৃত্তে অবস্থান করছে। এর মধ্যে সবচেয়ে নাজুক অবস্থায় রয়েছে মাধ্যমিক স্তর। আমরা যখন প্রাথমিক পর্যায়ে শতভাগ শিশুর বিদ্যালয়ের ভর্তির লক্ষ্য অর্জন করতে চলেছি, তখন লক্ষ্য রাখিনি যে এই শিশুদের একটা বড় অংশ মাধ্যমিক পর্যায়ে পেরোতে পারছে না। এসএসসি ও এর সমমানের শিক্ষা অর্জনের আগেই তাদের শিক্ষা জীবনের সমাপ্তি ঘটছে। বিষয়টি নি:সন্দেহে চিন্তা জাগানিয়া। সরকারের নানা উদ্যোগের পরেও প্রাথমিক স্তরের ১৮ শতাংশ শিক্ষার্থী এখনও কাজ করে যাচ্ছে। যাদের মধ্যে ছেলেদের সংখ্যাই বেশি। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এবং বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসাবে দেখা গেছে। প্রাথমিক ছাত্রদের থেকে ছাত্রীদের সংখ্যা বেশি হলেও ছেলেদের ঝরে পড়ার হার বেশি। দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে ২০১৯ সালে দুই কোটি এক লাখ ২২ হাজার ৩৩৭ জন শিক্ষার্থী ছিল।

 এর মধ্যে এক কোটি দুই লাখ ৭৮ হাজার ৮৪৪ জন ছাত্রী। যা মোট শিক্ষার্থীর ৫১ দশমিক ৩৮ শতাংশ। ২০১৯ সালে সারা দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিল ২৮ লাখ দুই হাজার ৫৩৫ জন, যাদের মধ্যে ১৪ লাখ ২৮ হাজার ৯৪২ জন ছাত্র এবং ১৩ লাখ ৭৩৪ হাজার ৫৯৩ জন ছাত্রী। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ছাত্রীদের সঙ্গে এখন ছাত্রদের উপবৃত্তি দেওয়া হলেও এর সুফল পেতে কিছুটা সময় লাগবে। আগে থেকে উপবৃত্তি না পাওয়ায় ছেলেদের ঝরে পড়ার হার বেশি বলে মনে করেন। তারা আরো মনে করেন আগে থেকে উপবৃত্তি না পাওয়ায় ছেলেদের ঝরে পড়ার হার বেশি বলে মত দিয়ে বিশেষজ্ঞরা বলেন, মূল ধারার সব বিদ্যালয় এবং উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির আওতায় আনতে হবে। কারণ সুবিধাবঞ্চিতরাই উপানুষ্ঠানিক শিক্ষায় পড়াশোনা করে, কিন্তু তারাই উপবৃত্তি পাচ্ছে না। শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার হার আরও কমাতে সরকারকে উপবৃত্তির পরিধি বাড়াতে হবে। শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার মূল কারণগুলো চিহ্নিত করে সেসব সমাধান করলে ইতিবাচক ফল মিলবে, এটা আশা করা যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ [email protected], [email protected]
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-২০২৪
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )