আজকের তারিখ- Sat-08-08-2020

মুঠোফোনেই মিলছে কৃষকের সমাধান

যুগের খবর ডেস্ক: কৃষি সংশ্লিষ্ট ফসলের কোনো সমস্যা বা সমাধান জানতে কাজ ফেলে সময় নষ্ট না করে এখন আর দেশের প্রান্তিক কৃষককে ছুটতে হবে না স্থানীয় কৃষি অফিসে। গত কয়েকবছর ধরে মুঠোফোনেই মিলছে এর সমাধান। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বারি) কৃষি পরিসংখ্যান এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের যৌথ প্রচেষ্টায় এই সেবায় আলো ছড়াচ্ছে কৃষকের মধ্যে।
চার বছর ধরে মুঠোফোনের অ্যাপস ব্যবহার ও অনলাইনে দুই ধরনের সেবা দিচ্ছে সরকারি এই প্রতিষ্ঠানটি। প্রতিনিয়ত এই সেবার ব্যবহারকারী বেড়েই চলছে। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে এখন পর্যন্ত প্রযুক্তিগতভাবে ১০ লাখেরও বেশি কৃষককে স্বল্প সময়ের মধ্যেই কৃষি সংশ্লিষ্ট সেবা দেওয়া হয়েছে।
বারির কৃষি পরিসংখ্যান এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের তথ্যমতে, বর্তমান সরকার ভিশন অনুযায়ী প্রতিটি বিভাগকে ডিজিটাইলাইজেশন করতে অগ্রাধিকারমূলকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে কৃষিপ্রধান দেশের প্রান্তিক কৃষকদের সেবা সহজীকরণের লক্ষে প্রযুক্তি মুঠোফোন অ্যাপসের ‘কৃষি প্রযুক্তিভাণ্ডার’ মাধ্যমে সেবা দেওয়া শুরু হয়েছে ২০১৫ সালে। এটি মূলত কৃষি প্রযুক্তিভিক্তিক মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন। এ অ্যাপসটি স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা মোবাইল হ্যান্ডসেটে ব্রাউজ করে ধান, গম, ভুট্টা, আলু, তৈলবীজ, ডাল, ফল, সবজি, ফুল, মসলা, পাট, তুলা, আখ ইত্যাদি ফসলের তথ্য জানতে পারবেন। এ অ্যাপসটির মাধ্যমে উদ্ভাবিত ফসলের জাত ও উৎপাদন প্রযুক্তি, বিশেষ করে রোগবালাই, পোকামাকড় ও সার ব্যবস্থাপনাসহ যাবতীয় তথ্য পাওয়া যায়। অধিকতর তথ্য জানার জন্য প্রশ্ন করার সুযোগ রয়েছে এ অ্যাপসটিতে। প্রশ্ন করার পর সর্বোচ্চ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে উত্তর দেয় সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা। প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কৃষি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে স্বল্পমূল্যে কল সেন্টার (১৬১২৩)-এর মাধ্যমে মুঠোফোনেই পরামর্শ নেওয়া যায়। বর্তমান সময়ে উদ্ভাবিত কৃষি প্রযুক্তিসমূহের তথ্য বিনামূল্যে, স্বল্পসময়ে ও সহজেই কৃষকের হাতে চলে যাচ্ছে এই অ্যাপসটির মাধ্যমে।
বারির পরিসংখ্যান ও প্রযুক্তি বিভাগের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা কাজী সাইদুর রহমান জানান, কৃষিতে প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ানোর মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে মুঠোফোনের মাধ্যমে সহজেই একজন কৃষককে তার চাদিকাকৃত সমস্যার সমাধান দেওয়া হচ্ছে। এতে দেশের প্রান্তিক কৃষক যারা বিভিন্ন সমস্যার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সময় ফেলে তার মাঠ ছেড়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হতো, তাকে এখন এই অ্যাপসটিই সকল সমাধান দিচ্ছে। আমরা অফিস সময়ের মধ্যে খুব দ্রুততম সময়ে কৃষকের চাহিদাকৃত সমস্যার সমাধান দিচ্ছি। এতে প্রান্তিক কৃষক সবচেয়ে লাভবান হবেন।
এই বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ কামরুল হাসান জানান, তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে দেশের কৃষিখাতের উন্নয়ন, কৃষকের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধ ধরে রাখার জন্য সরকার কৃষিপ্রযুক্তিকে কৃষকের হাতের মুঠোয় তুলে দিয়েছেন। বারির মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে স্বল্পসময়ে কৃষক তার সমাধান খুঁজে পাচ্ছেন। এখন পর্যন্ত ১০ লাখেরও বেশি কৃষককে এ অ্যাপসের মাধ্যমে তার চাহিদাকৃত সেবা দেওয়া হয়েছে। মাঠ পর্যায়ে কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের কৃষি কর্মকর্তারা কৃষকদের এই প্রযুক্তির ব্যবহার আয়ত্ত করাতে কাজ করছেন। কৃষিকাজে প্রযুক্তির এই ব্যবহার দেশের প্রান্তিক কৃষকের মধ্যে ব্যাপক সুফল বয়ে আনবে।
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এস, এম নুরুল আমিন সরকার
সম্পাদক কর্তৃক সারদা প্রেস, বাজার রোড, কুড়িগ্রাম থেকে মূদ্রিত ও মাচাবান্দা নামাচর, চিলমারী, কুড়িগ্রাম থেকে প্রকাশিত।
অফিসঃ উপজেলা পরিষদ মোড়, চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
ঢাকা অফিসঃ শ্যাডো কমিউনিকেশন, ৮৫, নয়া পল্টন (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা- ১০০০।
ফোনঃ ০৫৮২৪-৫৬০৬২, মোবাইল: ০১৭৩৩-২৯৭৯৪৩,
ইমেইলঃ jugerkhabor@gmail.com, smnuas1977@gmail.com
এই ওয়েবসাইট এর সকল লেখা,আলোকচিত্র,রেখাচিত্র,তথ্যচিত্র যুগেরখবর এর অনুমতি ছাড়া হুবহু বা আংশিক নকল করা সম্পূর্ন কপিরাইট আইনে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ।
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত যুগেরখবর.কম – ২০১৩-১৯
Design & Developed By ( Nurbakta Ali )